ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » বিস্তারিত


eid-ul-fitor-businesshour24

ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

বাণিজ্য মেলার শেষ দিন আজ

আপডেট : 2019-02-09 08:19:50
বাণিজ্য মেলার শেষ দিন আজ

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : মাসব্যাপী চলা ২৪তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শেষ হচ্ছে শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি)। গত ৯ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এ মেলার উদ্বোধন করেছিলেন। মেলা ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলার কথা থাকলেও ব্যবসায়ীদের অনুরোধে একদিন বাড়িয়ে ৯ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে।

নানা অনিয়ম, নৈরাজ্য, অব্যবস্থাপনা, আর দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে আপাতত আগামী এক বছরের জন্য শেষ হতে যাচ্ছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা। বেলা ১১টায় মেলা প্রাঙ্গণে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

অন্যান্য বছরের মতো এবারও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) যৌথভাবে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার আয়োজন করেছে। এবারও রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পশ্চিম পাশে এই মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর ১ জানুয়ারি মেলা শুরু হলেও এবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে বাণিজ্যমেলা এক সপ্তাহ পরে শুরু হয়েছিলো। স্বাভাবিক নিয়মে প্রধানমন্ত্রী এ মেলার উদ্বোধন করে থাকেন, তবে নির্বাচনের কারণে এ বছর মেলা উদ্বোধন করেছেন রাষ্ট্রপতি।

এ প্রসঙ্গে ইপিবির মহাপরিচালক অভিজিৎ চৌধুরী বলেন, বাণিজ্য মেলাকে দৃষ্টিনন্দন করতে এবার মেলার প্রধান গেটটি মেট্রোরেলের আদলে তৈরি করা হয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি আনুষ্ঠানিকভাবে মেলার সমাপ্তি ঘোষণা করবেন। যারা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন, তাদের মধ্যে ক্রেস্ট বিতরণের মধ্য দিয়ে মেলা শেষ হবে।

ইপিবি সূত্রে জানা গেছে, মেলায় সবমিলিয়ে ৫৫০টি স্টল ছিলো। এর মধ্যে সংরক্ষিত মহিলা স্টল ২০টি, প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন ৬০টি, প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন ৩৮টি, সাধারণ প্যাভিলিয়ন ১৮টি, সাধারণ মিনি প্যাভিলিয়ন ২৯টি, প্রিমিয়ার স্টল ৬৭টি, রেস্টুরেন্ট ৩টি, সংরক্ষিত প্যাভিলিয়ন ৯টি, সংরক্ষিত মিনি প্যাভিলিয়ন ৬টি, বিদেশি প্যাভিলিয়ন ২৬টি, সংরক্ষিত মিনি প্যাভিলিয়ন ৯টি, বিদেশি প্রিমিয়ার স্টল ১৩টি, সাধারণ স্টল ২০১টি ও ফুড স্টল ২২টি।

এবারের মেলায় মা ও শিশু কেন্দ্র, শিশুপার্ক, ই-পার্ক ও পর্যাপ্ত এটিএম বুথ ছিল। বিভিন্ন সামগ্রীর মধ্যে ছিল– রেডিমেড গার্মেন্টস পণ্য, হোমটেক্স, ফেব্রিকস পণ্য, হস্তশিল্প, পাট ও পাটজাত পণ্য, গৃহস্থালী ও উপহারসামগ্রী, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, তৈজসপত্র, সিরামিক, প্লাস্টিক পলিমার পণ্য, কসমেটিকস হারবাল ও প্রসাধনী সামগ্রী, খাদ্য ও খাদ্যজাত পণ্য, ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী, ইমিটেশন ও জুয়েলারি, নির্মাণসামগ্রী ও ফার্নিচারসামগ্রী।

বাংলাদেশ ছাড়াও আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় এ বছর অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ছিলো– ভারত, পাকিস্তান, চীন, ব্রিটেন, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, ভুটান, নেপাল, মরিশাস, ভিয়েতনাম, মালদ্বীপ, রাশিয়া, আমেরিকা, জার্মানি, সোয়াজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও হংকং।

বিজনেস আওয়ার/০৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮/ এমএএস

পাঠকের মতামত: