ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

পদ্মা-মেঘনায় নিষিদ্ধ হল মাছ ধরা

আপডেট : 2019-03-01 11:39:35
পদ্মা-মেঘনায় নিষিদ্ধ হল মাছ ধরা

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : বাংলাদেশ সরকার প্রতি বছরের মতো এবারও ইলিশের অভয়াশ্রম চাঁদপুরের পদ্মা ও মেঘনা নদীতে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস জাল ফেলা নিষিদ্ধ করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে এই নিষেধাজ্ঞা শুরু হয়েছে। তা বলবৎ থাকবে আগামী ৩০ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত।

নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন এ এলাকায় মাছ পরিবহন, বাজারজাত ও মজুদেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এ আইন অমান্যকারী জেলেদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার কথা জানিয়েছে মৎস্য বিভাগ। তবে এ সময়ে পেশাজীবী জেলেদের জীবনধারনের জন্য সরকার থেকে সহযোগিতা দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

ভোলার পূর্বপাশে ইলিশা থেকে বঙ্গোপসাগরের মোহনা পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার মেঘনা নদী এবং পশ্চিম পাশে কালাবদরের মোহনা থেকে চরপিয়াল পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার তেতুলিয়া নদী এলাকা মাছের অভয়াশ্রম হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুল্লাহ বাকী বলেন, এই সময় অভয়াশ্রম এলাকায় সব ধরনের জাল দিয়ে মাছ আহরণ, মজুদ, ক্রয়-বিক্রয় ও পরিবহনের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। যদি কেউ এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ আহরণ করেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে মৎস্য আইনে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা, দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড অথবা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

মৎস্য কর্মকর্তা আরো জানান, জেলার মতলব উত্তর, মতলব দক্ষিণ, চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলায় ৫১ হাজার ১৯০ জন তালিকাভূক্ত জেলেকে এই দুই মাস বিকল্প কর্মসংস্থান হিসেবে সরকারের পক্ষ থেকে সেলাই মেশিন, গবাদিপশুসহ অন্যন্যা সমাগ্রী দেওয়া হবে।

এ ছাড়া ফেব্রুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত চার মাস প্রত্যেক জেলেকে ৪০ কেজি করে চাল দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

বিজনেস আওয়ার/১ মার্চ, ২০১৯/আরআই

পাঠকের মতামত: