ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » সারাদেশ » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

বাঘাইছড়ি সেভেন মার্ডার

মামলাও হয়নি, আটক হয়নি কেউই

আপডেট : 2019-03-20 08:27:35
মামলাও হয়নি, আটক হয়নি কেউই

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক (রাঙ্গামাটি) : রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ির সাত খুনের ঘটনায় এখনও কোনও মামলা হয়নি। এমনকি কাউকে আটকও করতে পারেনি পুলিশ। দুর্গম এলাকা হওয়ায় অপরাধ করে পালিয়ে যাওয়া সুযোগ সবচেয়ে বেশি পাহাড়ে। অন্যদিকে বাঘাইছড়ি উপজেলা সীমান্তবর্তী হওয়ায় দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার সুযোগও রয়েছে।

এ ব্যাপারে বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এম মঞ্জুরুল আলম বলেন, ছয়জনের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনও বাঘাইছড়ি থানায় কোনও মামলা হয়নি।

নিহতদের পরিবারের সদস্যরা মানসিকভাবে এখন বিপর্যস্ত। বুধবার (২০ মার্চ) দুপুরের মধ্যে তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা হতে পারে। যদি না হয় রাতের মধ্যে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।

বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. পারভেজ বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছে, মামলার তদন্ত করেছি। নিহতদের মরদেহ সন্ধ্যায় পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হবে বলে আমাদের জানানো হয়েছে। তাই আমরা অপেক্ষা করছি।

অন্যদিকে বাঘাইছড়ির হত্যার ১২ ঘণ্টার মাথায় বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চগ্যাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

এই দুটি ঘটনার সঙ্গে পার্বত্য আঞ্চলিক দল সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস ও প্রসীত গ্রুপের ইউপিডিএফকে দায়ী করছে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুছা মাতব্বর। তবে জেএসএস এবং ইউপিডিএফ এ ঘটনার সঙ্গে তাদের কোনও সম্পৃক্ততা নেই বলছে।

এদিকে পাহাড়ে ২৪ ঘণ্টায় পৃথক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বুধবার সকালে পৌরসভা মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ হবে বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর।

সশস্ত্র হামলায় নির্বাচন কর্মকর্তাসহ সাতজন নিহতের ঘটনা তদন্তে সাত সদস্যের একটি কমিটি করেছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়। গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বিভাগের স্থানীয় সরকার পরিচালক দীপক চক্রবর্তীকে প্রধান করে গঠণ করা হয়।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান বলেন, রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে সদস্য সচিবের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/২০ মার্চ, ২০১৯/এমএএস

পাঠকের মতামত: