ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » সারাদেশ » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

আপনার থাকার কথা নড়াইলে, আপনি বাসায় গেছেন কেন স্যার? (ভিডিও)

আপডেট : 2019-04-27 11:49:27
আপনার থাকার কথা নড়াইলে, আপনি বাসায় গেছেন কেন স্যার? (ভিডিও)

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক (নড়াইল) : শুরু হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্যাম্প। তবে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা লিগে খেলা ক্রিকেটারদের ক্যাম্প থেকে দুদিনের ছুটি দেয়া হয়েছে। কিন্তু বিশ্রাম নেননি মাশরাফি বিন মুর্তজা।

ছুটি পেয়েই নড়াইলে ছুটেছেন তিনি। পরিবার নয়, নিজের এলাকার উন্নয়নকাজের তদারকিতে সেখানে গেছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক। সেই তদারকিতে আবির্ভূত হয়েছেন অগ্নিমূর্তি রূপে।

হঠাৎ মাশরাফি হাজির হন নড়াইল আধুনিক সদর হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসা নিতে আসা মানুষের কাছে নানা সমস্যার কথা শুনেন তিনি। খোঁজখবর নেন আরো অনেক বিষয়ে। দেখতে পান অসংখ্য অসঙ্গতি।

তবে তার কাছে সবচেয়ে বেশি দৃষ্টিকটু ঠেকে- পুরো হাসপাতালে একজন চিকিৎসকের দায়িত্ব পালনের দৃশ্য। জানতে পারেন, ছুটি ছাড়াই একজন চিকিৎসক তিনদিন অনুপস্থিত রয়েছেন!

হাজিরা খাতায় সার্জারি চিকিৎসক সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আকরাম হোসেনের ৩ দিনের অনুপস্থিতির প্রমাণ পেয়ে ছুটির আবেদন দেখতে চান। পরে জানতে পারেন ছুটি ছাড়াই সেই ডাক্তার ৩ দিন অনুপস্থিত।

ক্ষিপ্ত হয়ে মাশরাফি রোগী সেজে ওই চিকিৎসককে ফোন করেন। তিনি ম্যাশকে রোববার হাসপাতালে এসে চিকিৎসা নিতে বলেন। আপনার থাকার কথা নড়াইলে, আপনি বাসায় গেছেন কেন স্যার?

পরে নিজের পরিচয় দিয়ে মাশরাফি চিকিৎসককে বলেন, এখন যদি হাসপাতালে অপারেশন দরকার হয় তাহলে সেই রোগী কী করবেন? চুপ করে আছেন কেন? আপনি কি ফাইজলামি করেন?

মাশরাফি আরও বলেন, আপনার থাকার কথা নড়াইলে, আপনি বাসায় গেছেন কেন স্যার? বলেন এখন আপনাকে কি করবো, বলেন ?

চাকরি করলে নিয়ম মেনেই করবেন। এরপর মাশরাফি সেই ডাক্তারকে তার কর্তব্যর কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে দ্রুত কর্মস্থলে ফিরে আসার নির্দেশ দেন।

এখানেই শেষ নয়, তিনি নার্সদের অপর্যাপ্ততাও লক্ষ্য করেন। জানতে পারেন হাসপাতালে পর্যাপ্ত নার্স থাকলেও ২-১ জন দিয়েই সব ওয়ার্ড পরিচালিত হচ্ছে। ঘটনা শুনে তাৎক্ষণিক নিচে নেমে এসে নার্সিং সুপারভাইজারদের খোঁজ করেন সাংসদ।

নার্সদের কক্ষে তালা দেখতে পেয়ে টেলিফোনে দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন তিনি। এসময় একজন সুপারভাইজারের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। অপরজনের ফোন খোলা থাকলেও রিসিভ করেননি।

ওই সময় নড়াইল এক্সপ্রেসকে রোগীরা অনুরোধ করেন হাসপাতালের বাথরুম ও পরিবেশ দেখার জন্য। কয়েকটি বাথরুমের দরজা ভাঙা এবং দুর্গন্ধ দেখে তিনি নিজেই বিব্রত হয়ে যান।

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা এ ব্যাপারে জানার জন্য আবাসিক মেডিকেল অফিসারকে ফোন করতে বলেন। অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর বিথী খাতুন এ সময় অফিসে উপস্থিত থেকে মাশরাফির নানা প্রশ্নের জবাব দেন।

বিথী খাতুন বলেন, এমপি মাশরাফি হাসপাতালের সব সমস্যার কথা শুনেছেন। চিকিৎসক সঙ্কটের বিষয়টিও জেনেছেন। আমরা আশাবাদী নড়াইল আধুনিক সদর হাসপাতালের সব সমস্যা দূর হবে। রোগীরাও উন্নত চিকিৎসা পাবে।

এর আগে নড়াইল জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও সুধীজনের সঙ্গে মতবিনিময় করেন মাশরাফি। এছাড়া নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নার, সততা স্টোর, ডিজিটাল হাজিরা শুভ উদ্বোধন করেন তিনি।

১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নাকসী মাদরাসা বাজারের মসজিদের কাজেরও উদ্বোধন করেন। পাশাপাশি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষা হোস্টেলের উদ্বোধন করেন তিনি।
মাশরাফি আগামী ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত নড়াইলে অবস্থান করবেন। এর পর জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দিতে ঢাকায় আসবেন।

এমন ভূমিকায় দারুণ প্রশংসিত হয়েছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা। এমপির এসব কার্যক্রম ইতোমধ্যে ফেসবুকে ভাইরালও হয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/২৭ এপ্রিল, ২০১৯/এ

পাঠকের মতামত: