ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » ধর্ম » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

রমজানে আল্লাহর কৃতজ্ঞতা আদায়

আপডেট : 2019-05-24 12:15:28
রমজানে আল্লাহর কৃতজ্ঞতা আদায়

বিজনেস আওয়ার ডেস্কঃ সন্দেহ নেই রমজান মহান আল্লাহর এক অনন্য নিয়ামত। এ মাস ইবাদতের উর্বর মাস। এ মাসে কোরআন অবতীর্ণ হয়েছে। লাইলাতুল কদর এ মাসকে করেছে আরো মহিমান্বিত। এ মাসে জান্নাতের দরজা খুলে দেওয়া হয়, দোজখের দরজা বন্ধ করা হয় আর শয়তানকে করে রাখা হয় শৃঙ্খলিত। রমজান মাসের আগমনে মুসলমানরা আনন্দ প্রকাশ করেন। পবিত্র কোরআনে এসেছে, ‘বলো, এটা আল্লাহর অনুগ্রহ ও তাঁর দয়ায়। সুতরাং এতে তারা আনন্দিত হোক। তারা যা সঞ্চয় করে এটা তার চেয়ে উত্তম।’ (সুরা : ইউনুস, আয়াত : ৫৮)

মহান আল্লাহর অসংখ্য নিয়ামত দ্বারা বান্দারা পরিবেষ্টিত। আল্লাহ প্রদত্ত অগণিত প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষ নিয়ামত বান্দা ভোগ করে। পবিত্র কোরআনে এসেছে, ‘তোমরা আল্লাহ পাকের নিয়ামতরাজি গণনা করে শেষ করতে পারবে না, নিশ্চয় আল্লাহ অত্যন্ত ক্ষমাশীল ও দয়ালু।’ (সুরা : নাহল, আয়াত : ১৮)

কেবল মানবদেহে যেসব নিয়ামত রয়েছে, তা গণনা করেই শেষ করা যায় না। দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ, জবান, চোখ, নাক, কান, হাত, পা, আত্মা ও মেধা—এমন অসংখ্য নিয়ামত দ্বারা আমরা উপকৃত হচ্ছি।

বান্দার উচিত এই ভালোবাসার মূল্যায়ন করা, তাঁর নিয়ামত স্বীকার করা এবং তাঁর কৃতজ্ঞতা আদায় করে যাওয়া। যদিও আল্লাহ বান্দার কাছে এসবের কোনো বিনিময় চান না। বান্দার চাওয়া ছাড়াই তিনি এসব নিয়ামত দিয়েছেন। তবে বান্দাদের এসব নিয়ামতের মূল্যায়ন করতে বলেছেন এবং কৃতজ্ঞতা আদায়ের নির্দেশনা দিয়েছেন। আল্লাহ বলেন, ‘যদি তোমরা নিয়ামতের প্রতি কৃতজ্ঞ হও, তাহলে নিয়ামত বাড়িয়ে দেব, আর যদি কৃতঘ্ন হও তাহলে আমার শাস্তি অত্যন্ত কঠোর।’ (সুরা : ইবরাহিম, আয়াত : ১৪)

সাধারণত কৃতজ্ঞতা আদায়ের সহজ নিয়ম হলো মুখে ‘আলহামদুলিল্লাহ’ বলা। আল্লাহ পাকের অনুগ্রহ যে তিনি তাঁর অশেষ নিয়ামতের বিপরীতে ছোট্ট একটি শব্দ দিয়ে কৃতজ্ঞতা আদায়ের পদ্ধতি শিখিয়ে দিয়েছেন। নতুবা মানুষের পক্ষে আল্লাহর কৃতজ্ঞতা আদায় করা কঠিন হতো। আর প্রকৃত কৃতজ্ঞতা হলো নিয়ামতের যথাযথ মূল্যায়ন করা। রমজানে আল্লাহতাআলা আমাদের যেসব নিয়ামত দান করেছেন তার যথাযথ মূল্যায়ন করতে হবে। এই অবারিত নিয়ামত যেন আমরা অর্জন করতে পারি সে চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। আল্লাহ আমাদের তাওফিক দান করুন। আমিন।

আলোচক : পরিচালক, জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়া, যাত্রাবাড়ী, ঢাকা।

অনুলিখন : মাওলানা রিদওয়ান হাসান

বিজনেস আওয়ার/২৪ মে,২০১৯/ আরআই

পাঠকের মতামত: