ঢাকা, রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

নিমিষেই দূর করে ফেলুন মোবাইলের ভাইরাস

আপডেট : 2019-06-06 15:25:57
নিমিষেই দূর করে ফেলুন মোবাইলের ভাইরাস

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক : মোবাইলে ভাইরাসের কারণে নানা ধরণের সমস্যা পোহাতে হয় আমাদের। এমন এমন কাণ্ড মোবাইল ঘটাতে থাকে, যা আপনি না দেখলে কল্পনাই করতে পারবেন না। একটি মোবাইল যখন ভাইরাস আক্রান্ত হয়, তখন ওই ফোনের ডিসপ্লে পর্যন্ত কাঁপতে থাকে।

দেখে মনে হবে, ফোনের ডিসপ্লে নষ্ট হয়েছে। কিন্তু অনেকেই হয়ত বুঝতেই পারবেন না যে, এই সমস্যাটি ভাইরাসের কারণে হয়েছে। এছাড়াও আরো অনেক ধরণের ভুল কাজ করবে মোবাইল, যখন আপনার ফোনটি ভাইরাসাক্রান্ত হবে।

যেমন- ফোনের চার্জ শেষ দেখাবে ১০০% চার্জ করার পরও। এছাড়া বিভিন্ন ফাইল সেভ করার সময় দেখাবে হয়েছে, পড়ে দেখবেন ওই ফাইলটি আপনার ফোনেই নেই। মোদ্দাকথা ভাইরাসাক্রান্ত হলে আপনার ফোনটি অপ্রত্যাশিতভাবে কাজ করবে, যা কখনো কাম্য নয়।

এদিকে বেশ কয়েকবছর ধরে মোবাইলে আসছে বিভিন্ন ফিচার, যেমন প্লে প্রোটেক্ট। এ ছাড়াও গুগল বিভিন্ন ভাইরাস আক্রান্ত অ্যাপ্লিকেশনগুলো ডাউনলোড করার সুবিধা বন্ধ করে দিয়েছে। তা সত্ত্বেও মোবাইলে ভাইরাস ঢুকে পড়ে।

গুগল প্লে স্টোরে প্রচুর অ্যান্টি-ভাইরাস অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে। সেইগুলো ভাইরাসের আক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায়, ডিভাইসগুলো প্রথম থেকেই কোনো না কোনো ভাইরাস বা ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত।

আর ডিভাইস যখন এই ধরণের আক্রান্ত হয়, মনে রাখতে হবে সেগুলো কখনোই মোবাইলের নিরাপত্তা দিতে পারবে না। সেক্ষেত্রে কী করণীয়- যদি এমনটা হয়, আপনার ফোনের কোন অ্যাপস ম্যালওয়ার দ্বারা আক্রান্ত, তখন আপনি অযাচিত প্রচুর বিজ্ঞাপন দেখবেন।

এমনকি বারবার ডেটা এরর হতে দেখবেন। কিংবা ডিভাইসটি হঠাৎ করে আগের চেয়ে ধীরে ধীরে চলতে দেখবেন। বা খুব তাড়াতাড়ি ডিভাইসের ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে যাচ্ছে দেখবেন। তখনই বুঝতে হবে আপনার ফোন কোনোভাবে ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়ে গেছে।

তবে যাই হোক ফোন যদি ভাইরাসাক্রান্ত হয়ে পড়ে তাহলে বেশি না ভেবে এখনই এটি দূর করুন। নিম্নে কয়েকটি টিপস দেয়া হলো-

# যদি ফোন ভাইরাসাক্রান্ত হয়ে পড়ে, তাহলে প্রথমে স্মার্টফোনটি সুইচ অফ করুন এরপর সাউন্ড বাটন এবং অফ বাটন এক সঙ্গে প্রেস করে ফোনটি রিবুট করুন।

# যদি রিবুট অপশন খুলে যায় সেইখানে রিস্টার্ট বাটন প্রেস করুন, যাতে এই সময় ফোনে কোনো রকম ক্ষতি না হয়।

# পরে রিস্টার্ট হয়ে গেলে সেটিংস-এ গিয়ে অপশনে যান এরপর অপশনে গিয়ে প্রথমে দেখে নিন, আপনি যে অ্যাপসগুলো সর্বশেষ ডাউনলোড করেছেন। কোনো রকম অযাচিত অ্যাপ দেখলে সেইটাতে ক্লিক করুন।

এরপর অযাচিত অ্যাপটি আনইনস্টল করুন।

আর যদি দেখেন, আনইনস্টল বাটনটি নেই, তাহলে প্রথমে অ্যাপটি থেকে ‘অ্যাডমিন অ্যাক্সেস’ প্রত্যাহার করতে হবে। এরপর আবার সেটিংস থেকে সিকিউরিটি অপশনে গিয়ে ডিভাইস অ্যাডমিনিস্ট্রেটর অপশনে গিয়ে যে অ্যাপগুলি অযাচিত, সেইগুলো সিলেক্ট করে আনইনস্টল করতে হবে।

এইবার ফোনটি আবারো রিস্টার্ট করুন। কিন্তু মাথায় রাখবেন এইবার কিন্তু নরমাল মোডে রিস্টার্ট করতে হবে।

যদি উপরের পদ্ধতিতে কোনো কাজ না হয়, সে ক্ষেত্রে সেটিংস অপশনে গিয়ে> সিস্টেম> রিসেট অপশন> ইরেস অল ডেটা অপশন সিলেক্ট করতে হবে। তাহলে দেখবেন আপনার ফোনের সব ডাটা ডিলেট হয়ে নতুন ফোনের ন্যায় মোবাইল অন হবে। এরপর একটি একটি করে প্রয়োজনীয় অ্যাপসগুলো ইন্সটল করে নিন।

এরপর খুব ভালোভাবে ফোনটি ব্যবহার করুন। পরে দেখবেন আপনার ভাইরাস ফোন থেকে দূর হয়েছে। তবে মনে রাখবেন, ফোন রিসেট করলে আপনার মোবাইলের অভ্যন্তরীণ সব ডাটা চলে যাবে। সেক্ষত্রে রিসেট মারার আগে ভেবে দেখুন, তারপর করুন।

ভাইরাস আসলে একটি স্মার্টফোনকে একেবারে অকার্যকর করে ফেলে। তাই ভাইরাস মোবাইলে প্রবেশের আগে আমাদের প্রত্যেককে সতর্ক থাকতে হবে। তবে আমি, আপনি, আমরা কেউই তো ভাইরাস দেখতে পায় না।

তাহলে বুঝবো কীভাবে? বুঝতে পারবো না ঠিকই। তবে অযাচিত-অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ্লিকেশন স্মার্টফোনে ইন্সটল করা থেকে দূরে থাকা আমাদের প্রয়োজন। তাহলে আমরা মোবাইলকে ভাইরাসমুক্ত রাখতে পারবো।

বিজনেস আওয়ার/০৬ জুন, ২০১৯/এ

পাঠকের মতামত: