ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬
sristymultimedia.com

প্রচ্ছদ » খেলা » বিস্তারিত


ss-steel-businesshour24

Runner-businesshour24

'বাংলাদেশ যেকোনো উইকেটে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত'

আপডেট : 2019-08-26 14:41:42
'বাংলাদেশ যেকোনো উইকেটে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত'

স্পোর্টস ডেস্ক : টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়ার ১৮ বছর পেরিয়ে গেলেও টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশ এখনও কোনো লক্ষ্যই পূরন করতে পারেনি। টেস্ট ক্রিকেটের নতুন সদস্য আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে টাইগাররা।

আর এই টেস্টে নিজেদেরকে ফেভারিট মনে করছেন টাইগার অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। যেকোনো উইকেটেই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত আছেন টাইগাররা।

আফগানিস্তানকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আসলে প্রতিটি ম্যাচই চ্যালেঞ্জ। ছোট আর বড় বলে কোনো কথা না। কারণ টেস্ট ক্রিকেটে যারাই ভাল খেলবে তারাই জিতবে।

কিন্তু তারপরেও আমরা কিন্তু ওদের থেকে অনেক এগিয়ে আছি; অভিজ্ঞতার দিক থেকে। তাছাড়া হোম কন্ডিশন। ওদের থেকে অনেক দিক থেকেই এগিয়ে আছি। তারপরেও যতই এগিয়ে থাকি, যতই অভিজ্ঞতা থাকুক আমাদের ভাল ক্রিকেট খেলতে হবে।

আমাদের সবাইকে পারফর্ম করতে হবে। যার যার জায়গায় ইন্ডিভিজুয়ালি পারফর্ম করতে হবে। আর আমরা যদি পার্টিকুলার এরিয়াতে যদি পারফর্ম করি তাহলে কাজটা সহজ হয়ে যাবে।

তবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ কতটুকু আধিপত্য দেখাবে এমন প্রশ্নে মিরাজ বলেন, হ্যাঁ, অবশ্যই আমরা ডমিনেট করে খেলার চেস্টা করব। সেরকমই আমরা কাজ করছি।

এন্ড অব দ্য ডে আমরা যদি ভাল ক্রিকেট খেলি ওরা কিন্তু আমাদের বিপক্ষে ওরকম কিছুই করতে পারবে না। তারপরেও খেলায় কিন্তু হার-জিত থাকবে, ভাল সময়-খারাপ সময় থাকে।

আমরা যেন ভাল ক্রিকেট খেলি এবং আমরা যেন প্রমান করি যে না ওদের চেয়ে ভাল দল এবং আমরা ভাল ক্রিকেট খেলি। বিগত কয় বছরে যেটা খেলেছি। এটাই আমরা চেস্টা করছি, এভাবেই কঠোর পরিশ্রম করছি।

তিনি বলেন, একটা জিনিস দেখেন যে আমাদের বোলারদের হিউজ এক্সপেরিয়েন্স আছে। বিশেষ করে আমাদের সাকিব ভাইর কথা। অলমোস্ট ১৩-১৪ বছর ক্রিকেট খেলে ফেলেছেন, সাকসেসফুল প্লেয়ার, ওয়ার্ল্ড ক্লাস বোলার-ব্যাটিং।

তাইজুল ভাই হয়ত আর একটা উইকেট পেলে একশত উইকেট হবে। আমারও হয়ত ৩-৪ বছরের এক্সপেরিয়েন্স হয়েছে। এই তিন চার বছরে আমার যে এক্সপেরিয়েন্স হয়েছে; আমি বলব ওদের থেকে আমারদের টেস্ট ক্রিকেটের অভিজ্ঞতা ভাল।

আমরা যতক্ষণ ভাল করবে ততক্ষণ সার্ভাইব করব। একটা খারাপ করলে ওটাই মারবে। আর ধৈর্য্য সহকারে বোলার কতকক্ষণ বল করতে পারে এটাই বোলাররের সার্থকতা।

ওরা কতটুকু করবে বা কতটুকু প্রস্তুতি নিয়ে আসবে সেটা ওরাই ভাল জানে। বাট আমি মনে করি ওদের থেকে টেস্ট ক্রিকেটে আমরা অনেক এগিয়ে আছি। আমরা শতভাগ দিতে পারলে ফলাফল আমাদের দিকেই আসবে।

মিরপুরে না হয়ে টেস্টটা চট্টগ্রামে হচ্ছে। সেক্ষেত্রে স্পোর্টিং উইকেট তৈরি করা হলে স্পিনারদের জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে সেই চ্যালেঞ্জ নিতেও প্রস্তুত টাইগাররা।

মিরাজ বলেন, স্পিনার হিসেবে আমরা সব কন্ডিশনেই খেলতে অভ্যস্ত। আমাদের যে উইকেটই দিকনা কেনো আমরা প্রস্তুত। যেটা আসলে দলের জন্য, আমাদের জন্য ভাল হয়।

আসলে টেস্ট ক্রিকেট সবসময় চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেলতে হয়। যে টাইপের উইকেটই হোক না কেন চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত টিম টাইগাররা।

অনুশীলনের প্রথম দিন আঙুলে ব্যথা পান মিরাজ। তবে চোট বেশি গুরুতর নয় বলেন, আল্লাহর অশেষ রহমতে ভাল আছি। ওই রকম কোনো সমস্যা হয়নি। হয়ত তিন-চার দিন রেস্ট নিলে ভাল হয়ে যাবে।

বিজনেস আওয়ার/২৬ আগস্ট, ২০১৯/এ

পাঠকের মতামত: