আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শ্রীলঙ্কায় মুসলিম বিরোধী উত্তেজনা বাড়তে থাকায় আবারো কারফিউ জারি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে থেকে দেশজুড়ে কারফিউ জারি থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়, দেশজুড়ে বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ, আগুন ও ভাঙচুরের ঘটনায় একজনের মৃত্যু হওয়ার পর সহিংসতা আরও বাড়তে পারে, এমন আশঙ্কায় নতুন করে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

সহিংসতার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এখন পর্যন্ত অন্তত ৬০ জনকে আটক করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। এদের মধ্যে চরম ডানপন্থি বৌদ্ধ গোষ্ঠীর এক নেতাও রয়েছেন। এদিকে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে দেশটির সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, ফেসবুকে এক ব্যক্তির দেওয়া বিতর্কিত একটি পোস্টের পর খ্রিষ্টান-প্রধান শহর চিলৌতে মুসলিমদের কিছু দোকান ও মসজিদে আক্রমণের ঘটনা ঘটে।

পরবর্তীতে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া ৩৮ বছর বয়সী সেই মুসলিম ব্যবসায়ীকে খুঁজে বের করে গ্রেফতার করা হয়। উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ যেখানে সহিংসতা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে সেখানে কারফিউ আরও দীর্ঘ সময় ধরে জারি থাকবে।

দেশের সকলকে শান্ত থাকার জন্যে আহ্বান জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রানিল বিক্রমাসিংহে। উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতির কারণে গত মাসের ভয়াবহ এই হামলার তদন্ত কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

দাঙ্গা-হাঙ্গামা আরো ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ আরো কিছু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

শ্রীলঙ্কার ২ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার সিংহভাগই বৌদ্ধ ধর্মের অনুসারী। সেখান প্রায় ১০ শতাংশ মানুষ মুসলিম।

গত মাসে শ্রীলঙ্কায় যে হামলা চালানো হয়েছে স্থানীয় একটি জঙ্গি গোষ্ঠীই ওই হামলা চালিয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। তবে হামলায় নিজেদের দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস।