বিজনেস আওয়ার ডেস্কঃ অনেকসময়েই আমরা সন্তানের হাতে মোবাইল ফোনটি তুলে দিয়ে ভাবি খুব তথ্য প্রযুক্তি বুঝে ফেলবে আমাদের সন্তানটি। তবে বয়সের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পরিমিতভাবে এই প্রযুক্তিগুলো ব্যবহার না করলে সন্তানের বিপদ ঘটার সম্ভাবনা থাকে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

স্মার্টফোন আসক্তি মাদকাসক্তির মতোই বিপজ্জনক বলে লন্ডনে অনুষ্ঠিত শিক্ষা বিষয়ক একটি সম্মেলনে বিশেষজ্ঞরা এমন মতামত দিয়েছেন।

এতে আরও বলা হয়, স্ন্যাপচ্যাট ও ইনস্টাগ্রামে বন্ধুদের বার্তা পাঠানোতে সময় ব্যয় মাদক ও অ্যালকোহলে আসক্তির মতোই বিপজ্জনক হতে পারে। তাই মাদকাসক্তি দূর করতে যেমন পদক্ষেপ নেয়া হয় স্মার্টফোন আসক্তি থেকেও শিশুদের বের করে নিয়ে আসতে একই রকম চেষ্টা করা উচিত।

প্রযুক্তি আসক্তি ও কিশোর উন্নয়নের বিষয়ে বক্তৃতা করতে গিয়ে লন্ডনের হারলে স্ট্রিট রিহ্যাব ক্লিনিকের বিশেষজ্ঞ ম্যান্ডি সালিগ্যারি বলেন, স্মার্টফোনের পর্দায় শিশু-কিশোরদের সময় কাটানোর সে আসক্তি তা গুরুত্ব সহকারে দেখা হয় না। আমি সবসময় মানুষকে বলি আপনি যখন সন্তানকে ট্যাবলেট বা ফোন কিনে দিচ্ছেন আপনি আসলে তাদে এক বোদল মদ কিংবা এক গ্রাম কোকেইন কিনে দিচ্ছেন। বন্ধ দরজার পেছনে আপনি তাদের সবকিছু করার সুযোগ দিয়ে একলা ছেড়ে দিচ্ছেন। মাদক ও অ্যালকোহলের মতো এসব বিষয়ও একই মস্তিষ্কেই বিরূপ প্রভাব ফেলে। তারপরও কেন আমরা এ বিষয়গুলোতে কম গুরুত্ব দেই?

বিজনেস আওয়ার/১২জুন,২০১৯/আরআই