বিজনেস আওয়ার ডেস্কঃ এই শীতে বাড়ির ছাদে বা খোলা জায়গায় হয়ে যাক না জমজমাট বারবিকিউ পার্টি। চুলা থেকে নামিয়ে গরম গরম বারবিকিউ করা মাংস খাওয়ার মজাই আলাদা। তবে সে জন্য চাই একটু প্রস্তুতি। বারবিকিউয়ের বিশেষ চুলা, কয়লা ইত্যাদি প্রয়োজন হবে। আর বাড়ির ভেতবে বৈদ্যুতিক চুলাতেও বারবিকিউ করতে পারেন।

অনেকেই মনে করেন, বারবিকিউ করা অনেক ঝামেলার কাজ। কিন্তু রেসিপি জানা থাকলে বাড়ির ছাদে বা খোলা কোনো জায়গায় আগুন জালিয়ে আপনিও সহজে তৈরি করে ফেলতে পারেন চমৎকার সুস্বাদু বারবিকিউ। তাহলে জেনে নিন বারবিকিউর সহজ রেসিপি।

উপকরণ: মুরগির বড় পিস ৪ টুকরো, পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, কারী মসলা ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, জিরা গুঁড়া সামান্য, গোলমরিচ গুঁড়া সামান্য, মধু ১ চা চামচ, দই ১ চা চামচ, অলিভ অয়েল ২ টেবিল চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ, সরিষা বাটা ১ চা চামচ, সয়া সস ২ চা চামচ, টমেটো সস ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ পেস্ট ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণ মতো।

এছাড়াও যা লাগবে -শিক, কয়লা ও চুলা। প্রথমেই চুলায় কয়লা বিছিয়ে অল্প পরিমাণ কেরোসিন তেল ছিটিয়ে আগুন জ্বালিয়ে নিতে হবে।

প্রণালীঃ মুরগি ৪ টুকরা করে কেটে, ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এরপর ছুরি বা কাটা চামচ দিয়ে মাংসের গা একটু চিরে নিন। এর ফলে মসলাগুলো ভালোভাবে মাংসের ভেতরে ঢুকবে। তারপর সব মসলা দিয়ে মাংস ম্যারিনেট করে রেখে দিতে হবে কমপক্ষে ৪-৫ ঘণ্টা। এবার শিকগুলো ধুয়ে তাতে তেল ব্রাশ করে মাংস গেঁথে নিয়ে চুলায় বসান। এরপর শিকগুলো বারবার ঘুরিয়ে দিতে হবে ও একটু পরপর তেল ব্রাশ করতে হবে। মুরগির টুকরোগুলো যখন একটু পোড়া হয়ে আসবে তখন শিকগুলো চুলা থেকে নামিয়ে মাংসগুলো একটি প্লেটে সাজিয়ে নিতে হবে। এরপর পরোটা বা নান দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে পারেন।

চুলা তৈরির সহজ টিপসঃ

- ইট (প্রায় দশটার মত)
- একটা লোহার জালি বা নেট (হার্ডওয়্যারের দোকান, ঝালাইয়ের দোকানে পাওয়া যায়)
- কয়লা (দেড়-দুই কেজি)
- বারবিকিউ সস(আধুনিক স্টোর বা চেইন শপিংএ পাওয়া যায়।১৬৫টাকা পড়েছে)
- আগুন ধরানোর জন্য কেরোসিন
- অবশ্যই পর্যাপ্ত বাতাস দেবার জন্য পাখা, টেবিল ফ্যান হলে ভালো হয়।
- একটি ছোট ব্রাশ।

বিজনেস আওয়ার/২০ নভেম্বর, ২০১৯/আরআই