বিনোদন ডেস্ক : সম্প্রতি পরিবহন শ্রমিকদের নোংরা ভাষায় কিংবদন্তি অভিনেতা ও 'নিরাপদ সড়ক চাই' সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনকে অপমানের প্রতিবাদে ২৫ নভেম্বর (সোমবার) দুপুরে এফডিসির সামনে মানববন্ধনের করেছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৮টি সংগঠন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, সহ সভাপতি বদিউল আলম খোকন, পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান, শাহিন সুমন, আতিকুর রুহমান লিটন, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, নায়িকা অঞ্জনা, অরুণা বিশ্বাস, চিত্রনায়ক ইমন, আলেক জান্ডার বো ও মারুফসহ অনেকে।

মানববন্ধনে মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, দেশের মানুষের নিরাপদ জীবনের জন্য ইলিয়াস কাঞ্চন দীর্ঘ ২৭ বছর একা একা লড়াই করে চলছেন। তার প্রতি অপমান মেনে নেয়া যায় না। কাঞ্চন সাহেব রাষ্ট্রকে সুপারিশ করেছেন কী কী নিয়ম ও আইন করতে পারলে দেশের সড়ক দুর্ঘটনা কমবে বা সড়কে মৃত্যুর মিছিল থামবে।

সরকার সেই আইন বাস্তবায়ন করবে রাষ্ট্রের প্রয়োজনে। আমরা ইলিয়াস কাঞ্চনের পাশে আছি। তিনি বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের রাস্তায় নিরাপদে চলতে কাজ করে যাচ্ছেন। যারা পরিবহন শ্রমিক তাদের নিরাপত্তার জন্যও তার দাবি ভূমিকা রাখবে। তাহলে তাকে কেন অপমান করা হচ্ছে। আমরা চাই ইলিয়াস কাঞ্চনকে কেউ ভুল না বুঝে তার দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে সেগুলো বাস্তবায়নে সহমত পোষণ করুক।

শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর বলেন, ইলিয়াস কাঞ্চন আমাদের কাছে একজন সম্মানী লোক। দেশের মানুষের রাস্তায় নিরাপদে চলাচলের জন্য দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছেন। মানুষের কল্যাণেই নিবেদিত এক প্রাণ। তাকে অপমান করা মানে শিল্পী সমাজকেই অপমান। আমরা তার অপমান সহ্য করব না। শিল্পীদের রাস্তায় নামতে বাধ্য করবেন না।

মানববন্ধনের ডাক দেওয়া ১৮ সংগঠনের মধ্যে রয়েছে অন্তর্ভুক্ত ছিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতি, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক, শিল্পী, নৃত্যশিল্পী, চিত্রগ্রাহক, ফাইট ডিরেক্টর, সহকারী পরিচালকদের সমিতিগুলো।

উল্লেখ্য, ১৯৯৩ সালে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় জনপ্রিয় নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী জাহানারা মারা যান। এরপর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আর সিনেমা করবেন না তিনি। বাস্তব জীবনের নায়ক হতে গড়ে তোলেন ‘নিরাপদ সাড়ক চাই’ সংগঠন।

বিজনেস আওয়ার/২৫ নভেম্বর, ২০১৯/এ