বিনোদন প্রতিবেদকঃ নায়ক হিসেবে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ফেরদৌস। সবগুলোই প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের জন্য। সমসাময়িক নায়কদের মধ্যে সর্বোচ্চ পুরস্কারের খেতাবটি এখনও তারই দখলে। শুরুটা ছিল ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ দিয়ে। এটা ছিল ফেরদৌসের প্রথম ছবি। প্রথম ছবিতেই বাজিমাৎ। এরপর আরও তিনটি সেরার পুরস্কার তার ঝুলিতে।

সবশেষ ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার আবারও পেলেন ফেরদৌস। আগামী ৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন।

এ প্রসঙ্গে ফেরদৌস বলেন, ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার একজন শিল্পীর জন্য সর্বোচ্চ স্বীকৃতি। এ স্বীকৃতি বারবার পাওয়া একজন শিল্পীর জন্য অবশ্যই সৌভাগ্যের এবং গর্বের। ধন্যবাদ পুত্র ছবির পুরো টিমকে, অটিজম বিষয়টিকে উপজীব্য করে ছবিটি নির্মাণ করে তা দর্শকের সামনে তুলে ধরার জন্য। আমি সব সময়ই সমাজ সচেতনতামূলক ছবিতে কাজ করতে আগ্রহী। এ যাবৎ যতগুলো ছবির জন্য পুরস্কার পেয়েছি সবই কোনো না কোনোভাবে সমাজ সচেতনতামূলক ছিল।’

তিনি আরও বলেন- ‘আমি কখনই জুটি প্রথায় বা নাম্বার ওয়ান হতে হবে এই রীতিতে বিশ্বাসী ছিলাম না। সব সময়ই দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজে লাগে এমন ছবিতে অভিনয় করেছি। তবে কিছু তো বিনোদনমূলক ছিলই। আগামীতে আরও পুরস্কার চাই এটা সত্যিই। তবে পুরস্কারের চেয়ে দর্শকের ভালোবাসাটাই আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাদের কারণেই আমি আজকের ফেরদৌস।’

বর্তমানে এ নায়ক ‘গাঙচিল’ ও ‘জ্যাম’ নামে দুটি ছবিতে অভিনয় করছেন। দুটি ছবিই পরিচালনা করছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল। এছাড়াও শেষ করেছেন জিএম ফারুকের ‘যদি আরেকটু সময় পেতাম’ ছবির কাজ। এছাড়াও তার অভিনীত মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’ ও অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’ ছবিগুলো মুক্তির অপেক্ষায় আছে।

বিজনেস আওয়ার/৩ ডিসেম্বর, ২০১৯/আরআই