স্পোর্টস ডেস্ক : ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে বোরডাক্সের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। নেইমার আর ময়েস কিনের গোলে এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়েছে পিএসজিকে। ঘরের মাঠে ড্র করলেও পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে নেইমার-এমবাপেরা।

ম্যাচের শুরুতে পিএসজি সেন্টার ব্যাক তিমুথে পেম্বেলের আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ে পিএসজি। খেলার ১০ মিনিটের মাথায় কর্নার থেকে উড়ে আসা বল পিএসজির তরুণ ডিফেন্ডার পেম্বেলের গায়ে লেগে জালে জড়িয়ে পড়ে। আর তাঁর আত্মঘাতি গোলেই প্রতিপক্ষ বোরডাক্স এগিয়ে যায় পার্ক ডে প্রিন্সে।

গোল হজম করেই তা পরিশোধের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে পিএসজি। একের পর এক আক্রমণ করে দলকে সমতায় ফেরানোর চেষ্টা করতে থাকে নেইমার, এমবাপে আর কিন। ম্যাচের ২৪ মিনিটে ডি বক্সের ভেতর নেইমারকে ফাউল করলে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে পিএসজিকে পেনাল্টি উপহার দেন রেফারি। আর স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে সমতায় ফেরান নেইমার জুনিয়র।

সমতায় ফিরার পরের মিনিটেই লিড লিড নেয় পিএসজি। ২৭ মিনিট পর্যন্ত ১-০ গোলে পিছিয়ে থাকা পিএসজি ম্যাচের ২৮ মিনিটে এসে ২-১ গোলে লিড নেয়। নেইমারের পাস প্রতিফলিত হয়ে ময়েস কিন পেয়ে যান আর ভুল না করে বল জালে জড়িয়ে দলকে ২-১ গোলের ব্যবধানে এগিয়েও নেন।

প্রথমার্ধ শেষের আগে আর কোনো গোল না হওয়ায় পিএসজি ২-১ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায়। বিরতি থেকে ফিরে আরও আক্রমণাত্মক পিএসজি, ৪৭ মিনিটে তৃতীয় গোলের দেখা প্রায় পেয়েও গিয়েছিল কিন্তু এমবাপের শট বোরডাক্স গোলরক্ষক রুখে দিলে ৩-১ গোলে এগিয়ে যাওয়া হয়নি পিএসজির।

পিএসজি এগিয়ে যেতে ব্যর্থ হলেও ম্যাচের ৬০ মিনিটে বোরডাক্স ম্যাচে ফিরতে ব্যর্থ হয়নি। খেলার ৬০ মিনিটের মাথায় হাতেম বেন আরফার অ্যাসিস্ট থেকে ইয়াসিন আদিল গোল করে বোরডাক্সকে ২-২ গোলে সমতায় ফেরায়।খেলার শেষ সময় পর্যন্ত গোলের জন্য মরিয়া হয়ে চেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকে পিএসজি। আর তাতেই শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলে সমতায় থেকেই ম্যাচ শেষ করে দুই দল।

বিজনেস আওয়ার/২৯ নভেম্বর, ২০২০/এ