1. [email protected] : Asim : Asim
  2. [email protected] : anis : anis
  3. [email protected] : Admin : Admin
  4. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  5. [email protected] : Polash : Polash
  6. [email protected] : Rajowan : Rajowan
  7. [email protected] : Riyad : Riyad
  8. [email protected] : sattar miazi : sattar miazi
ওয়ালটনের শেয়ার দর প্রথম দিন ১২৬ টাকা বেড়েছে
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন

ওয়ালটনের শেয়ার দর প্রথম দিন ১২৬ টাকা বেড়েছে

  • পোস্ট হয়েছে : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
Walton

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : লেনদেনের প্রথম দিন শেয়ার দর সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ বা ১২৬ টাকা বেড়েছে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কোম্পানিটির অ্যাডজাস্ট ওপেনিং প্রাইস ছিল ২৫২ টাকা। কিন্তু প্রথম দিন কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন শুরু হয় ৩৭৮ টাকায়। অর্থাৎ শুরুতেই কোম্পানিটির শেয়ারের সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ বা ১২৬ টাকা বেড়েছে।

প্রথম দিন কোম্পানিটির ৩৪৮টি শেয়ার ২২ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিটির ১ লাখ ৩২ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

‘এন’ ক্যাটাগরিভুক্ত ডিএসইতে কোম্পানিটির ট্রেডিং কোড হচ্ছে: “WALTONHIL” এবং কোম্পানি কোড হচ্ছে : ১৩২৪৮।

গত ৬ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির আইপিওতে আবেদনকারীদের মধ্যে শেয়ার বরাদ্দ দেয়ার জন্য লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়। আর ৯ আগস্ট থেকে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত কোম্পানিটির আইপিওতে গ্রহণ করা হয়।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ শেয়ারবাজার থেকে ১০০ কোটি টাকা উত্তোলন করে। এর মধ্যে যোগ্য বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৬০ কোটি ৯৬ লাখ ৫৭ হাজার ৮০৫ টাকা এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৩৯ কোটি ৩ লাখ ৪২ হাজার ১৯৫ টাকা উত্তোলন করে। সংগৃহীত টাকা থেকে ৬২ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যবসা সম্প্রসারণ, ৩৩ কোটি টাকা ঋণ পরিশোধ ও ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা আইপিও পরিচালনাবাবদ ব্যয় করবে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।

দেশে সর্বপ্রথম ডাচ পদ্ধতিতে গত ২ থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত ওয়ালটনের নিলাম (বিডিং) শেষে কাট-অফ প্রাইস নির্ধারণ করা হয় ৩১৫ টাকা। আইন অনুসারে, কাট-অফ প্রাইসের ১০ শতাংশ কমে (ডিসকাউন্ট) আইপিওতে শেয়ার ইস্যুর বিধান থাকলেও সাধারণ ও ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীর স্বার্থ এবং শেয়ারবাজারের উন্নয়নের কথা বিবেচনা করে ২০ শতাংশ কমে প্রতিটি শেয়ার ২৫২ টাকায় ইস্যু করছে ওয়ালটন।

ওয়ালটন হাই-টেকের ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে এএএ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট।

এর আগে চলতি বছরের ২৩ জুন শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ৭২৯তম সভায় ওয়ালটন হাই-টেককে আইপিওর মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের অনুমোদন দেওয়া হয়।

বিজনেস আওয়ার/২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০/এস

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
এ বিভাগের আরো সংবাদ