ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বন্ধুর কবর খোঁড়ার সময় আরেক বন্ধুর মৃত্যু

  • পোস্ট হয়েছে : ০৬:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • 11

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: চট্টগ্রামের হাটহাজারী পৌর সদরের আজিম পাড়ায় হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত মোহাম্মদ আরাফাত (২৮) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়। পরে সংবাদ শুনে কবর খুঁড়তে গিয়ে ছিলেন তার বাল্যবন্ধু আজম। কাঁদতে কাঁদতে কবর খোঁড়ার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন আজম। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকেও মৃত ঘোষণা করেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তারও মৃত্যু হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক।

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের হাটহাজারীর আজিমপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে প্রাণপ্রিয় দুই বন্ধুর একসঙ্গে চলে যাওয়া কোনোভাবেই মানতে পারছেন না গ্রামবাসী।

মৃত যুবকরা হলেন: মোহাম্মদ আরাফাত (২৮) ও মোহাম্মদ আজম (২৮)। দুজনই আজিম পাড়ার বাসিন্দা। আরাফাত ওই এলাকার মো. মুসার ছেলে। মোহাম্মদ আজমের বাবার নাম নুরুল ইসলাম। আরাফাত হাটহাজারী সদরে স্টিলের আলমারি তৈরির একটি দোকানে কাজ করতেন। মোহাম্মদ আজম পেশায় অটোরিকশার চালক।

হাটহাজারী পৌরসভার স্থানীয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ আজম উদ্দিন জানান, সোমবার সকাল ৯টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ মারা যান আরাফাত। বন্ধুর মৃত্যু খবর পেয়ে সেখানে আসেন আজম। এ সময় কাঁদতে কাঁদকে কবর খোঁড়ার এক পর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে আজম সেখানে মারা যান।

মৃত মোহাম্মদ আরাফাত হাটহাজারীর একটি স্টিলের দোকানে কাজ করতেন। মোহাম্মদ আজম ছিলেন রিকশাচালক। আজম ছিলেন বিবাহিত। তার ঘরে রয়েছে দুটি সন্তান। অন্যদিকে, আরাফাত ছিলেন অবিবাহিত। তবে, তার বিয়ে ঠিক হয়েছিল। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল বলে জানান স্বজনরা।

বিজনেস আওয়ার/১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩/এএইচএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

বন্ধুর কবর খোঁড়ার সময় আরেক বন্ধুর মৃত্যু

পোস্ট হয়েছে : ০৬:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: চট্টগ্রামের হাটহাজারী পৌর সদরের আজিম পাড়ায় হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত মোহাম্মদ আরাফাত (২৮) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়। পরে সংবাদ শুনে কবর খুঁড়তে গিয়ে ছিলেন তার বাল্যবন্ধু আজম। কাঁদতে কাঁদতে কবর খোঁড়ার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন আজম। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকেও মৃত ঘোষণা করেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তারও মৃত্যু হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক।

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের হাটহাজারীর আজিমপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে প্রাণপ্রিয় দুই বন্ধুর একসঙ্গে চলে যাওয়া কোনোভাবেই মানতে পারছেন না গ্রামবাসী।

মৃত যুবকরা হলেন: মোহাম্মদ আরাফাত (২৮) ও মোহাম্মদ আজম (২৮)। দুজনই আজিম পাড়ার বাসিন্দা। আরাফাত ওই এলাকার মো. মুসার ছেলে। মোহাম্মদ আজমের বাবার নাম নুরুল ইসলাম। আরাফাত হাটহাজারী সদরে স্টিলের আলমারি তৈরির একটি দোকানে কাজ করতেন। মোহাম্মদ আজম পেশায় অটোরিকশার চালক।

হাটহাজারী পৌরসভার স্থানীয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ আজম উদ্দিন জানান, সোমবার সকাল ৯টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ মারা যান আরাফাত। বন্ধুর মৃত্যু খবর পেয়ে সেখানে আসেন আজম। এ সময় কাঁদতে কাঁদকে কবর খোঁড়ার এক পর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে আজম সেখানে মারা যান।

মৃত মোহাম্মদ আরাফাত হাটহাজারীর একটি স্টিলের দোকানে কাজ করতেন। মোহাম্মদ আজম ছিলেন রিকশাচালক। আজম ছিলেন বিবাহিত। তার ঘরে রয়েছে দুটি সন্তান। অন্যদিকে, আরাফাত ছিলেন অবিবাহিত। তবে, তার বিয়ে ঠিক হয়েছিল। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল বলে জানান স্বজনরা।

বিজনেস আওয়ার/১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩/এএইচএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: