ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশে কমেছে ক্রেডিট কার্ডে লেনদেন

  • পোস্ট হয়েছে : ০৫:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩
  • 13

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: ক্রেডিট কার্ডের জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। তবে বিদেশে ও দেশের মধ্যে কার্ডের লেনদেনের চিত্র ভিন্ন। কারণ দেশের ভেতরে বিভিন্ন ধরনের কেনাকাটায় সেপ্টেম্বরে ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ হয়েছে ২ হাজার ২৪৯ কোটি টাকা। আগস্টে যার পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৪৩৮ কোটি টাকা। সেই হিসাবে এক মাসের ব্যবধানে দেশের ভেতরে ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় খরচ কমেছে প্রায় ১৮৯ কোটি টাকা। অপরদিকে একই মাসে বিদেশে ক্রেডিট কার্ডে খরচ বেড়েছে সাড়ে ৪ শতাংশের বেশি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, গত আগস্ট মাসের মতো সেপ্টেম্বরেও বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ করেছেন ভারতে। এরপর রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এ দুই দেশে বাংলাদেশিরা সেপ্টেম্বরে খরচ করেছেন ১৪২ কোটি টাকা। এই দুই দেশের পর বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডের বেশি ব্যবহার করেছেন ইউএই, থাইল্যান্ড, যুক্তরাজ্য ও সিঙ্গাপুরে। আর দেশের বাইরে ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ হয় ডিপার্টমেন্টাল স্টোর, খুচরা দোকান ও ফার্মেসিতে।

আলোচ্য মাসটিতে দেশের বাইরে বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ ৭৩ কোটি টাকা খরচ করেছেন ভারতে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৯ কোটি টাকা খরচ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় পরের দেশগুলো হলো ইউএই, থাইল্যান্ড, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, কানাডা, মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, নেদারল্যান্ডস, আয়ারল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বের আরও কিছু দেশে খরচ করা হয়েছে ৫৬ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, দেশে-বিদেশে ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ হয় ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে। সেপ্টেম্বরে দেশ-বিদেশ মিলিয়ে ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে খরচ করা হয়েছে মোট ১ হাজার ২১৯ কোটি টাকা। এর মধ্যে দেশের বিভিন্ন ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে খরচ হয়েছে ১ হাজার ৯২ কোটি টাকা। আর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে খরচ হয়েছে ১২৭ কোটি টাকা। এরপর দেশ-বিদেশ মিলিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অর্থ খরচ হয় খুচরা দোকান বা রিটেইল আউটলেটে, যার পরিমাণ ৩৬৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে দেশের খুচরা দোকানে খরচ হয়েছে ২৮৯ কোটি টাকা আর বিদেশের খুচরা দোকানে ৭৫ কোটি টাকা। এর বাইরে ছিল পরিষেবা বিল, নগদ উত্তোলন, ফার্মেসি, পোশাকের দোকান, অর্থ স্থানান্তর ও পরিবহন খাতে খরচ।

গত সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশিরা বিদেশে গিয়ে ক্রেডিট কার্ডে নগদ উত্তোলন করেছেন প্রায় ২৫ কোটি টাকা। আর দেশের ভেতরে নগদ উত্তোলনের পরিমাণ ছিল ১৯৪ কোটি টাকা।

তথ্য অনুযায়ী, বিদেশে বাংলাদেশি ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার বাড়লেও দেশের ভেতরে ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ কমেছে সেপ্টেম্বরে। দেশের ভেতরে বিভিন্ন ধরনের কেনাকাটায় সেপ্টেম্বরে ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ হয়েছে ২ হাজার ২৪৯ কোটি টাকা। আগস্টে যার পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৪৩৮ কোটি টাকা। সেই হিসাবে এক মাসের ব্যবধানে দেশের ভেতরে ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় খরচ কমেছে প্রায় ১৮৯ কোটি টাকা। তার বিপরীতে বিদেশে ক্রেডিট কার্ডে খরচ বেড়েছে ১৯ কোটি টাকা।

বিজনেস আওয়ার/এএইচএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

দেশে কমেছে ক্রেডিট কার্ডে লেনদেন

পোস্ট হয়েছে : ০৫:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: ক্রেডিট কার্ডের জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। তবে বিদেশে ও দেশের মধ্যে কার্ডের লেনদেনের চিত্র ভিন্ন। কারণ দেশের ভেতরে বিভিন্ন ধরনের কেনাকাটায় সেপ্টেম্বরে ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ হয়েছে ২ হাজার ২৪৯ কোটি টাকা। আগস্টে যার পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৪৩৮ কোটি টাকা। সেই হিসাবে এক মাসের ব্যবধানে দেশের ভেতরে ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় খরচ কমেছে প্রায় ১৮৯ কোটি টাকা। অপরদিকে একই মাসে বিদেশে ক্রেডিট কার্ডে খরচ বেড়েছে সাড়ে ৪ শতাংশের বেশি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, গত আগস্ট মাসের মতো সেপ্টেম্বরেও বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ করেছেন ভারতে। এরপর রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এ দুই দেশে বাংলাদেশিরা সেপ্টেম্বরে খরচ করেছেন ১৪২ কোটি টাকা। এই দুই দেশের পর বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডের বেশি ব্যবহার করেছেন ইউএই, থাইল্যান্ড, যুক্তরাজ্য ও সিঙ্গাপুরে। আর দেশের বাইরে ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ হয় ডিপার্টমেন্টাল স্টোর, খুচরা দোকান ও ফার্মেসিতে।

আলোচ্য মাসটিতে দেশের বাইরে বাংলাদেশিরা ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ ৭৩ কোটি টাকা খরচ করেছেন ভারতে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৯ কোটি টাকা খরচ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় পরের দেশগুলো হলো ইউএই, থাইল্যান্ড, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, কানাডা, মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, নেদারল্যান্ডস, আয়ারল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বের আরও কিছু দেশে খরচ করা হয়েছে ৫৬ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, দেশে-বিদেশে ক্রেডিট কার্ডে সবচেয়ে বেশি অর্থ খরচ হয় ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে। সেপ্টেম্বরে দেশ-বিদেশ মিলিয়ে ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে খরচ করা হয়েছে মোট ১ হাজার ২১৯ কোটি টাকা। এর মধ্যে দেশের বিভিন্ন ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে খরচ হয়েছে ১ হাজার ৯২ কোটি টাকা। আর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে খরচ হয়েছে ১২৭ কোটি টাকা। এরপর দেশ-বিদেশ মিলিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অর্থ খরচ হয় খুচরা দোকান বা রিটেইল আউটলেটে, যার পরিমাণ ৩৬৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে দেশের খুচরা দোকানে খরচ হয়েছে ২৮৯ কোটি টাকা আর বিদেশের খুচরা দোকানে ৭৫ কোটি টাকা। এর বাইরে ছিল পরিষেবা বিল, নগদ উত্তোলন, ফার্মেসি, পোশাকের দোকান, অর্থ স্থানান্তর ও পরিবহন খাতে খরচ।

গত সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশিরা বিদেশে গিয়ে ক্রেডিট কার্ডে নগদ উত্তোলন করেছেন প্রায় ২৫ কোটি টাকা। আর দেশের ভেতরে নগদ উত্তোলনের পরিমাণ ছিল ১৯৪ কোটি টাকা।

তথ্য অনুযায়ী, বিদেশে বাংলাদেশি ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার বাড়লেও দেশের ভেতরে ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ কমেছে সেপ্টেম্বরে। দেশের ভেতরে বিভিন্ন ধরনের কেনাকাটায় সেপ্টেম্বরে ক্রেডিট কার্ডে অর্থ খরচ হয়েছে ২ হাজার ২৪৯ কোটি টাকা। আগস্টে যার পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৪৩৮ কোটি টাকা। সেই হিসাবে এক মাসের ব্যবধানে দেশের ভেতরে ক্রেডিট কার্ডে কেনাকাটায় খরচ কমেছে প্রায় ১৮৯ কোটি টাকা। তার বিপরীতে বিদেশে ক্রেডিট কার্ডে খরচ বেড়েছে ১৯ কোটি টাকা।

বিজনেস আওয়ার/এএইচএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: