1. [email protected] : anjuman : anjuman
  2. [email protected] : user : user
  3. [email protected] : Admin : Admin
  4. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
শেষের দোরগোড়ায় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের লড়াই
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:০৭ অপরাহ্ন

শেষের দোরগোড়ায় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের লড়াই

  • পোস্ট হয়েছে : সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
print sharing button

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: শেষের দোরগোড়ায় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দশম আসর। রাউন্ড রবিন লিগ পর্ব শেষে এবার প্লে-অফের বাঁচা মরার লড়াই। শেষের দ্বারপ্রান্তে এসে শুধু দলীয় লড়াই নয়, ব্যাটে-বলে ব্যক্তিগত প্রদর্শনীর লড়াই হয়েও দাঁড়িয়েছে।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) মাঠে গড়াবে প্লে-অফের দুটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। দুপুরে এলিমেনেটর ম্যাচে মুখোমুখি হবে তৃতীয় ও চতুর্থ দল ফরচুন বরিশাল-চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। আর দ্বিতীয় ম্যাচে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিতের লড়াইয়ে লড়বে প্রথম দুই দল রংপুর রাইডার্স-কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

চট্টগ্রামের বিপক্ষে বরিশালের যেমন ফাইনালের দৌড়ে টিকে থাকার লড়াই তেমন প্রতিশোধের মঞ্চও। রাউন্ড রবিন লিগে দুবারের দেখায় প্রত্যেকবারই হাসিমুখে মাঠ ছেড়ে চ্যালেঞ্জার্স। তামিম ইকবালের দলের সামনে এবার সুযোগ নকআউটে এসে সেই প্রতিশোধ পূরণের। টুর্নামেন্টের শুরুতে বরিশাল নড়বড়ে পারফর্ম করলেও দিন বদলের সঙ্গে সঙ্গে যেন নিজেদেরও পরিবর্তন করে নিয়েছে। আর শুরু থেকে ধারাবাহিক থাকা চট্টগ্রাম মাঝপথে খেই হারিয়ে ফেললেও ছেড়ে কথা বলবেন না তারা। রাউন্ড রবিন লিগে বরিশাল জিতেছে সাতটি ম্যাচ আর চট্টগ্রাম তার একটি কম।

দলটির দুই ওপেনার টুর্নামেন্টের সেরা রান সংগ্রাহকের তালিকায় প্রথম তিনে অবস্থান করছেন। টুর্নামেন্টজুড়ে ধারাবাহিক খেলা তামিম ৩৯১ রান নিয়ে অবস্থান করছেন শীর্ষে। এলিমেনেটরের লড়াইয়ে তার ব্যাটের দিকে তাকিয়ে থাকবে ফ্র্যাঞ্চাইজি। ৯ রান কমে তৃতীয় স্থানে আছেন জুনিয়র তামিম খ্যাত তানজীদ হাসান তামিম। এই তরুণের ব্যাটে এসেছে সেঞ্চুরিও। ব্যাট হাতে এই দুজনের লড়াইও পার্থক্য গড়ে দিতে পারে।

বল হাতেও দুই দলে রয়েছে পারফর্মার। ইনজুরি থেকে ফেরা মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ব্যাটে-বলে খেলছেন দারুণ। ৬ ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন, শেষে বরিশালের এই অলরাউন্ডার খেলেছেন ক্যামিও। বল হাতে জাদু দেখাতে প্রস্তুত দুই স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজও। অন্যদিকে চট্টগ্রামের পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন ওমানের পেসার বিলাল খান আর দেশিদের মধ্যে শহীদুল ইসলাম। শুরুতে এবং শেষে এই দুই বোলার প্রায় প্রতি ম্যাচেই দলের ত্রাণ কর্তা হয়ে দাঁড়াচ্ছেন। এখন পর্যন্ত বিলাল ১৪ ও শহীদুল ১১ উইকেট নিয়েছেন।

দুই দলেই আছে বিদেশি পারফর্মার। তবে কিছুট এগিয়ে আছে বরিশাল। কাইল মায়ার্স যোগ দেওয়ার পর এমনিতে ব্যাটে-বলে দলটির শক্তি বেড়েছে। এবার এসেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান কিলার খ্যাত ডেবিড মিলার। চট্টগ্রামে এমন বড় নাম না থাকলেও জর্জ ব্রাউন কিংবা টম ব্রুস নিজেদের দিনে খেলার চাকা ঘুরিয়ে দিতে পারেন।

দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে লড়বে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে ধারবাহিক দুই দল রংপুর-কুমিল্লা। ব্যাটে-বলে দুই দলের মধ্যে যেন পারফর্মারদের ছড়াছড়ি। ১২টি ম্যাচের মধ্যে সর্বোচ্চ ৯টিতে জিতে প্লে-অফ নিশ্চিত করেছে রংপুর। অন্যদিকে কুমিল্লা সমান ম্যাচে ১ জয় কমে ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে রংপুরের। চলমান আসরে দুবারের দেখায় প্রত্যেকে জিতেছে ১টি করে ম্যাচ। আজ যে জিতবে সবার আগে নিশ্চিত হবে ফাইনাল। হারলেও সুযোগ থাকবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে।

শীর্ষে থাকা রংপুরের মধ্যে অবশ্য ব্যাট হাতে সেরা দশে কেউ নেই। তবে অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সে সবার চেয়ে এগিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। টুর্নামেন্টের শুরুতে ধুঁকতে থাকা সাকিব আল হাসানের ব্যাটে ছুটছে রানের ফোয়ারা। বল হাতে আগের ধারই বিদ্যামান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের। ২৪৯ রান সঙ্গে ঝুলিতে ১৭ উইকেট! ১৫৮ রান ও ১৫ উইকেট নেওয়া শেখ মেহেদী হাসানও ম্যাচের চিত্র বদলে দিতে পারেন যেন কোনো মুহুর্তে।

বিদেশিদের মধ্যে জিমি নিশাম ব্যাটে-বলে রাখতে পারেন সমান অবদান। আছেন ব্রেন্ডন কিংয়ের মতো হার্ডহিটারও। দলটির অন্যতম শক্তি অলরাউন্ডার আর লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ। তবে চারবারের চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লার বিপক্ষে জিততে হলে সেরা খেলাটাই খেলতে হবে সাকিবদের। দলটিতে দেশি-বিদেশি সবাই পারফর্ম করছেন সমানতালে। ব্যাট হাতে ৩৮৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন তাওহীদ হৃদয়। অধিনায়ক লিটন দাসের রান ২৯২।

বিদেশিদের মধ্যে আগে থেকে মঈন আলী দলের হাল ধরেছেন, এর মধ্যে রাউন্ড রবিন লিগের শেষে যোগ দিয়েছেন আন্দ্রে রাসেল-সুনীল নারাইন। টি-টোয়েন্টিতে এই দুজন কতটা প্রভাব রাখতে পারেন এর মধ্যে তারা প্রমাণ করেছেন। আছেন উইল জ্যাকসের মতো হার্ড হিটার। মিডল অর্ডারে আলো ছড়াচ্ছেন দেশি ব্যাটার জাকের আলী অনিক। আর বল হাতে জাদু দেখাতে প্রস্তুত তানভীর ইসলাম কিংবা রহস্যময় আলিস আল ইসলাম। দুজনে নিয়েছেন যথাক্রমে ১২ ও ৯ উইকেট।

বিজনেস আওয়ার/বিএইচ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের আরো সংবাদ