ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২০ বিলিয়ন ডলারের নিচে দেশের রিজার্ভ

  • পোস্ট হয়েছে : ০৭:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
  • 35

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: ফের ২০ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমেছে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ১৯.৮৯ বিলিয়ন ডলার। এর আগে গত সপ্তাহ শেষে রিজার্ভ ২০.১০ বিলিয়ন ডলার ছিল।

জানা গেছে, হুন্ডি প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স না আসাসহ বিভিন্ন কারণে রিজার্ভ কমেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালের আগস্টে দেশের ইতিহাসে রিজার্ভ সর্বোচ্চ ৪৮ বিলিয়ন ডলারের ঘর ছাড়িয়েছিল। বিদেশ থেকে ঋণ নেওয়াসহ বিভিন্ন উপায়ে ওই সময় রিজার্ভ বাড়ানো হয়। এরপর থেকে ডলার সঙ্কট কাটাতে গিয়ে ২৯ বিলিয়ন ডলারের বেশি বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এতে কমতে–কমতে গত নভেম্বর শেষে রিজার্ভ ১৯.৩০ বিলিয়ন ডলারে নেমেছিল। এরপর আবার বেড়ে ডিসেম্বরে ২১.৮৬ বিলিয়ন হয়। এরপর কমতে–কমতে গত মার্চ শেষে ১৯.৯১ বিলিন ডলারে নেমেছিল। এরপর গত সপ্তাহ শেষে তা বেড়ে ২০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছিল।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাধারণত প্রতি বছর রমজান ও ঈদকে কেন্দ্র করে রেমিট্যান্স বাড়ে। তবে এবার তার উল্টো চিত্র দেখা গেছে।

গত মার্চে প্রবাসীরা ব্যাংকিং চ্যানেলে ১৯৯ কোটি ৬৮ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছেন, যা আগের বছরের একই মাস বা আগের মাস ফেব্রুয়ারির তুলনায় কম।

বিজনেস আওয়ার/১৮ এপ্রিল/ এ এইচ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

২০ বিলিয়ন ডলারের নিচে দেশের রিজার্ভ

পোস্ট হয়েছে : ০৭:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক: ফের ২০ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমেছে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ১৯.৮৯ বিলিয়ন ডলার। এর আগে গত সপ্তাহ শেষে রিজার্ভ ২০.১০ বিলিয়ন ডলার ছিল।

জানা গেছে, হুন্ডি প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স না আসাসহ বিভিন্ন কারণে রিজার্ভ কমেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালের আগস্টে দেশের ইতিহাসে রিজার্ভ সর্বোচ্চ ৪৮ বিলিয়ন ডলারের ঘর ছাড়িয়েছিল। বিদেশ থেকে ঋণ নেওয়াসহ বিভিন্ন উপায়ে ওই সময় রিজার্ভ বাড়ানো হয়। এরপর থেকে ডলার সঙ্কট কাটাতে গিয়ে ২৯ বিলিয়ন ডলারের বেশি বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এতে কমতে–কমতে গত নভেম্বর শেষে রিজার্ভ ১৯.৩০ বিলিয়ন ডলারে নেমেছিল। এরপর আবার বেড়ে ডিসেম্বরে ২১.৮৬ বিলিয়ন হয়। এরপর কমতে–কমতে গত মার্চ শেষে ১৯.৯১ বিলিন ডলারে নেমেছিল। এরপর গত সপ্তাহ শেষে তা বেড়ে ২০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছিল।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাধারণত প্রতি বছর রমজান ও ঈদকে কেন্দ্র করে রেমিট্যান্স বাড়ে। তবে এবার তার উল্টো চিত্র দেখা গেছে।

গত মার্চে প্রবাসীরা ব্যাংকিং চ্যানেলে ১৯৯ কোটি ৬৮ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছেন, যা আগের বছরের একই মাস বা আগের মাস ফেব্রুয়ারির তুলনায় কম।

বিজনেস আওয়ার/১৮ এপ্রিল/ এ এইচ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: