ঢাকা , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গরমে অজান্তেই হতে পারে হার্ট অ্যাটাক, কীভাবে সতর্ক থাকবেন?

  • পোস্ট হয়েছে : ১২:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
  • 146

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: জীবনযাপনে অনিয়মের কারণে এখন কমবয়সীদের মধ্যেও বাড়ছে হার্ট অ্যাটাকের ঘটনা। এই গরমে একটু অসতর্ক হলে যখন তখনই হতে পারে হার্ট অ্যাটাক। তবে হার্ট অ্যাটাক হয়েছে কি না বুঝবেন কী করে?

অনেকেরই ধারণা আছে, হার্ট অ্যাটাক মানেই বুকে ব্যথা, শ্বাসকষ্টের মতো উপসর্গ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই উপসর্গগুলো থাকলেও বহু সময়ে এমন কিছু উপসর্গও থাকতে পারে যা সাধারণভাবে আমরা উপেক্ষা করি।

বিশেষ করে গরমের সময় ঘাম, ক্লান্তি, গা-হাত-পা ঝিমঝিম করার মতো অনুভূতির পেছনেও যে হার্ট অ্যাটাক কারণ হতে পারে, তা হয়তো অনেকেরই অজানা।

হার্ট অ্যাটাকের ক্ষেত্রে কখনো কখনো বুকে ব্যথার মতো উপসর্গ নাও হতে পারে। এর পরিবর্তে প্রচণ্ড ঘাম হতে পারে। গরমে এ ধরনের ঘটনা অনেকে অগ্রাহ্য করেন। তাই স্বাভাবিকের থেকে বেশি ঘামলে সতর্ক হতে হবে।

আর একটি গুরুতর লক্ষণ হতে পারে ক্লান্তি। গরমে এই লক্ষণকেও আমরা অগ্রাহ্য করি। তবে মনে রাখবেন, এ সময় অস্বাভাবিক ক্লান্তিও কিন্তু হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হতে পারে।

এছাড়া বমি বমি ভাব, গা-হাত-পা ঝিমঝিম অথবা বুকে কোনো ধরনের অস্বস্তি হলে বসে না থেকে দ্রুত হাসপাতালে যান। গরমে শ্বাসের সমস্যা হলেও সতর্ক হতে হবে।

আগে থেকে হার্টের কোনো সমস্যা থাকলে তীব্র গরমে বাইরে না বের হওয়াই ভালো। এ সময় খুব পরিশ্রম হয় বা ওয়ার্কআউট না করাই ভালো তাদের জন্য। হালকা স্ট্রেচিং ও যোগাসন করতে পারেন।

আরও খেয়াল রাখতে হবে, শরীরে পানির ঘাটতি যেন না হয়। এছাড়া যাদের কিডনির সমস্যা আছে, তারা এ বিষয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ অবশ্যই নেবেন।

সূত্র: এবিপি নিউজ

বিজনেস আওয়ার/০৮ জুন/ হাসান

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

গরমে অজান্তেই হতে পারে হার্ট অ্যাটাক, কীভাবে সতর্ক থাকবেন?

পোস্ট হয়েছে : ১২:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: জীবনযাপনে অনিয়মের কারণে এখন কমবয়সীদের মধ্যেও বাড়ছে হার্ট অ্যাটাকের ঘটনা। এই গরমে একটু অসতর্ক হলে যখন তখনই হতে পারে হার্ট অ্যাটাক। তবে হার্ট অ্যাটাক হয়েছে কি না বুঝবেন কী করে?

অনেকেরই ধারণা আছে, হার্ট অ্যাটাক মানেই বুকে ব্যথা, শ্বাসকষ্টের মতো উপসর্গ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই উপসর্গগুলো থাকলেও বহু সময়ে এমন কিছু উপসর্গও থাকতে পারে যা সাধারণভাবে আমরা উপেক্ষা করি।

বিশেষ করে গরমের সময় ঘাম, ক্লান্তি, গা-হাত-পা ঝিমঝিম করার মতো অনুভূতির পেছনেও যে হার্ট অ্যাটাক কারণ হতে পারে, তা হয়তো অনেকেরই অজানা।

হার্ট অ্যাটাকের ক্ষেত্রে কখনো কখনো বুকে ব্যথার মতো উপসর্গ নাও হতে পারে। এর পরিবর্তে প্রচণ্ড ঘাম হতে পারে। গরমে এ ধরনের ঘটনা অনেকে অগ্রাহ্য করেন। তাই স্বাভাবিকের থেকে বেশি ঘামলে সতর্ক হতে হবে।

আর একটি গুরুতর লক্ষণ হতে পারে ক্লান্তি। গরমে এই লক্ষণকেও আমরা অগ্রাহ্য করি। তবে মনে রাখবেন, এ সময় অস্বাভাবিক ক্লান্তিও কিন্তু হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হতে পারে।

এছাড়া বমি বমি ভাব, গা-হাত-পা ঝিমঝিম অথবা বুকে কোনো ধরনের অস্বস্তি হলে বসে না থেকে দ্রুত হাসপাতালে যান। গরমে শ্বাসের সমস্যা হলেও সতর্ক হতে হবে।

আগে থেকে হার্টের কোনো সমস্যা থাকলে তীব্র গরমে বাইরে না বের হওয়াই ভালো। এ সময় খুব পরিশ্রম হয় বা ওয়ার্কআউট না করাই ভালো তাদের জন্য। হালকা স্ট্রেচিং ও যোগাসন করতে পারেন।

আরও খেয়াল রাখতে হবে, শরীরে পানির ঘাটতি যেন না হয়। এছাড়া যাদের কিডনির সমস্যা আছে, তারা এ বিষয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ অবশ্যই নেবেন।

সূত্র: এবিপি নিউজ

বিজনেস আওয়ার/০৮ জুন/ হাসান

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: