ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের জেরে লোকসভায় উত্তেজনা

  • পোস্ট হয়েছে : ০৯:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪
  • 91

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: হিন্দুরা নয়, সংঘাত ও ঘৃণা ছড়ায় বিজেপি। রাহুল গান্ধীর এমন মন্তব্যকে ঘিরে উত্তাল হলো লোকসভা। রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি তুললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

সোমবার (১ জুলাই) সংসদে বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাহুল বলেন, এই দেশ ভয়ের দেশ নয়। আমাদের পূর্বপুরুষরা অহিংসার কথা বলেছেন। ভগবান শিব তার গলায় সাপ ও ত্রিশূল নিলেও তাকে দেখা যায় অভয়মুদ্রায়। যার অর্থ ভয় পেয়ো না।

বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচনী লাভের জন্য রাজনীতির সঙ্গে ধর্মকে মিশ্রিত করার অভিযোগ করেন রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন, যারা নিজেদের হিন্দু বলেন, তারা প্রতিনিয়ত সহিংসতা, ঘৃণা আর অসত্যের প্রচার করে।

রাহুলের স্পষ্ট ইঙ্গিত ছিল বিজেপি ও আরএসএস-এর প্রতি। বিজেপি ও আরএসএস সত্যিকারের হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব করে না বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে বিজেপি নেতারা একযোগে অভিযোগ করেছেন, বৃহত্তর হিন্দু সম্প্রদায়ের কথাই বলতে চেয়েছেন রাহুল গান্ধী। হিন্দু সম্প্রদায়কে তিনি অপমান করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

অমিত শাহ বলেন, বিরোধী নেতা বলেছেন যারা নিজেকে হিন্দু বলেন তারা সহিংসতা করেন। এই দেশে কোটি কোটি মানুষ গর্বের সঙ্গে নিজেকে হিন্দু বলেন। তাহলে তারা সবাই কী সহিংসতা করেন? সহিংসতার ভাবনাকে কোনো ধর্মের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া অত্যন্ত অন্যায়। তার উচিত ক্ষমা চাওয়া।

এ প্রসঙ্গে জরুরি অবস্থার কথা তুলে ধরে শাহ আরও বলেন, আতঙ্কের বিষয় যদি কিছু ঘটে থাকে তবে তা ঘটেছিল জরুরি অবস্থার সময়। গোটা দেশকে জেল বানিয়ে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করেছিলেন তারা।

রাহুলের মন্তব্যের বিরোধিতায় সরব হন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। রাহুলকে উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনি এভাবে গোটা হিন্দু সম্প্রদায়কে দোষারোপ করতে পারেন না।

সূত্র: এনডিটিভি

বিজনেস আওয়ার/০১ জুলাই /এ এইচ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

রাহুল গান্ধীর মন্তব্যের জেরে লোকসভায় উত্তেজনা

পোস্ট হয়েছে : ০৯:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: হিন্দুরা নয়, সংঘাত ও ঘৃণা ছড়ায় বিজেপি। রাহুল গান্ধীর এমন মন্তব্যকে ঘিরে উত্তাল হলো লোকসভা। রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি তুললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

সোমবার (১ জুলাই) সংসদে বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাহুল বলেন, এই দেশ ভয়ের দেশ নয়। আমাদের পূর্বপুরুষরা অহিংসার কথা বলেছেন। ভগবান শিব তার গলায় সাপ ও ত্রিশূল নিলেও তাকে দেখা যায় অভয়মুদ্রায়। যার অর্থ ভয় পেয়ো না।

বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচনী লাভের জন্য রাজনীতির সঙ্গে ধর্মকে মিশ্রিত করার অভিযোগ করেন রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন, যারা নিজেদের হিন্দু বলেন, তারা প্রতিনিয়ত সহিংসতা, ঘৃণা আর অসত্যের প্রচার করে।

রাহুলের স্পষ্ট ইঙ্গিত ছিল বিজেপি ও আরএসএস-এর প্রতি। বিজেপি ও আরএসএস সত্যিকারের হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব করে না বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে বিজেপি নেতারা একযোগে অভিযোগ করেছেন, বৃহত্তর হিন্দু সম্প্রদায়ের কথাই বলতে চেয়েছেন রাহুল গান্ধী। হিন্দু সম্প্রদায়কে তিনি অপমান করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

অমিত শাহ বলেন, বিরোধী নেতা বলেছেন যারা নিজেকে হিন্দু বলেন তারা সহিংসতা করেন। এই দেশে কোটি কোটি মানুষ গর্বের সঙ্গে নিজেকে হিন্দু বলেন। তাহলে তারা সবাই কী সহিংসতা করেন? সহিংসতার ভাবনাকে কোনো ধর্মের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া অত্যন্ত অন্যায়। তার উচিত ক্ষমা চাওয়া।

এ প্রসঙ্গে জরুরি অবস্থার কথা তুলে ধরে শাহ আরও বলেন, আতঙ্কের বিষয় যদি কিছু ঘটে থাকে তবে তা ঘটেছিল জরুরি অবস্থার সময়। গোটা দেশকে জেল বানিয়ে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করেছিলেন তারা।

রাহুলের মন্তব্যের বিরোধিতায় সরব হন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। রাহুলকে উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনি এভাবে গোটা হিন্দু সম্প্রদায়কে দোষারোপ করতে পারেন না।

সূত্র: এনডিটিভি

বিজনেস আওয়ার/০১ জুলাই /এ এইচ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: