1. [email protected] : Asim : Asim
  2. [email protected] : anis : anis
  3. [email protected] : Admin : Admin
  4. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  5. [email protected] : Polash : Polash
  6. [email protected] : Rajowan : Rajowan
  7. [email protected] : Riyad : Riyad
  8. [email protected] : sattar miazi : sattar miazi
সূচকের উত্থানেও বিনিয়োগকারীরা মূলধন হারিয়েছে ৪ হাজার কোটি টাকা
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:২১ অপরাহ্ন

সূচকের উত্থানেও বিনিয়োগকারীরা মূলধন হারিয়েছে ৪ হাজার কোটি টাকা

  • পোস্ট হয়েছে : শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : আগের সপ্তাহে পতন হলেও বিদায়ী সপ্তাহ (১৮ অক্টোবর-২২ অক্টোবর) উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। সপ্তাহটিতে শেয়ারবাজারের প্রধান প্রধান সূচক বেড়েছে। একই সঙ্গে টাকার পরিমাণে লেনদেন বেড়েছে। তবে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। আর সূচক ও লেনদেন বাড়লেও সপ্তাহটিতে বিনিয়োগকারীরা ৪ হাজার কোটি টাকা মূলধন হারিয়েছে।

জানা গেছে, চলতি সপ্তাহে উভয় শেয়ারবাজার মিলে বিনিয়োগকারীরা ৪ হাজার ৫৫ কোটি ৮৬ লাখ ৮২ হাজার টাকা মূলধন হারিয়েছে। এর মধ্যে ডিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৫৫১ কোটি ৯৭ লাখ ৫৩ হাজার টাকায়য়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৫৭৫ কোটি ৫ লাখ ২১ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর বিনিয়োগকারীরা ১ হাজার ৯৭৬ কোটি ৯২ লাখ ৩২ হাজার টাকা বা ০.৪৯ শতাংশ মূলধন হারিয়েছে।

আর সিএসইতে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরু আগে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ২৯ হাজার ৪০১ কোটি ১২ লাখ ৯০ হাজার টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিব লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ২৭ হাজার ৩২২ কোটি ১৮ লাখ ৪০ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইর বিনিয়োগকারীরা ২ হাজার ৭৮ কোটি ৯৪ লাখ ৫০ টাকা মূলধন হারিয়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৪ হাজার ২৪০ কোটি ৭৯ লাখ ২১ হাজার ৪৪০ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা আগের সপ্তাহ থেকে ৮৮২ কোটি ৫৪ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৩ টাকা বা ২৬.২৮ শতাংশ বেশি হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩ হাজার ৩৫৮ কোটি ২৪ লাখ ৫৫ হাজার ৮২৭ টাকার।

ডিএসইতে বিদায়ী সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছে ৮৪৮ কোটি ১৫ লাখ ৮৪ হাজার ২৮৮ টাকার। আগের সপ্তাহে গড় লেনদেন হয়েছিল ৬৭১ কোটি ৬৪ লাখ ৯১ হাজার ১৬৫ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে গড় লেনদেন ১৭৬ কোটি ৫০ লাখ ৯৩ হাজার ১২৩ টাকা বেশি হয়েছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪১.৭৪ পয়েন্ট বা ০.৮৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৯১৪.০৪ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১.২০ পয়েন্ট বা ০.১১ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২১.৯৮ পয়েন্ট বা ১.৩২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১১৪.১৭ পয়েন্টে এবং ১৬৯২.৪৪ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৫৯টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১২৫টির বা ৩৪.৮১ শতাংশের, কমেছে ১৮৩টির বা ৫০.৯৭ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টির বা ১৪.২৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১১৬ কোটি ১২ লাখ ৮৭ হাজার ১০১ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১১৪ কোটি ৯০ লাখ ৯০ হাজার ৯২৬ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ১ কোটি ২১ লাখ ৯৬ হাজার ১৭৫ টাকা বা ১.০৬ শতাংশ বেড়েছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৪৬.২৬ পয়েন্ট বা ১.০৫ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ২৯.৬৮ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ৯২.২০ পয়েন্ট বা ১.১৪ শতাংশ, সিএসই-৩০ সূচক ৭২.১৯ পয়েন্ট বা ০.৬২ শতাংশ এবং সিএসই-৫০ সূচক ৬.২৫ পয়েন্ট বা ০.৬৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৮ হাজার ৪৩২.৯৫ পয়েন্টে, ১১ হাজার ৬৪৫.২৮ পয়েন্টে এবং ১০০৫.৩৪ পয়েন্টে। অপর সূচক সিএসআই ১.৯৬ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ কমে ৮৯৪.০১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩১০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১১০টির বা ৩৫.৪৮ শতাংশের দর বেড়েছে, ১৫৪টির বা ৪৯.৬৭ শতাংশের কমেছে এবং ৪৬টির বা ১৪.৮৩ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

বিজনেস আওয়ার/২৩ অক্টোবর, ২০২০/এস

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
এ বিভাগের আরো সংবাদ