ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গরমে দীর্ঘক্ষণ বাইরে থাকলে যে পোশাক পরবেন

  • পোস্ট হয়েছে : ০৩:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪
  • 36

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: বিভিন্ন কারণে আমাদের ঘরের বাইরে থাকতে হয়। তবে এই থাকার ধরন যদি হয় দীর্ঘক্ষণ, তাহলে অবশ্যই চিন্তার বিষয়। এর জন্য শুরুতেই ভাবতে হবে নিজের পোশাক নিয়ে। যদি প্রচণ্ড রোদে অবস্থান করতে হয়, তাহলে আরামদায়ক পোশাক পরা জরুরি। পোশাকটি যদি আরামদায়ক না হয়, তাহলে অস্বস্তির যেন শেষ নেই।

তাই এই গরমে পাতলা সুতির পোশাক পরার বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে রঙের বিষয়টিও বিবেচনা করতে হবে। আমরা হয়তো জানি না, গরমে কোন রঙের পোশাকে বেশি আরাম পাওয়া যাবে। যদি ধারণা থাকে, তবে সুতা এবং রং বিবেচনা করে পোশাক পরা উচিত। দিনটিকে স্বস্তিদায়ক করতে এই পোশাকের জুড়ি নেই।

ফ্যাশনবিদরা জানিয়েছেন, গরমে সাদা পোশাক পরলেই বেশি আরাম পাওয়া যায়। তবে শুধু সাদা নয়, শরীর ঠান্ডা রাখতে হালকা রঙের পোশাক পরা জরুরি। এসব পোশাকের ভেতর দিয়ে সহজে বাতাস চলাচল করতে পারে। ফলে গরমে কখনোই আঁটোসাঁটো পোশাক পরা উচিত নয়। এ ধরনের পোশাক পরলে বাতাস চলাচল করতে পারে না। ফলে ঘাম আটকে অস্বস্তি সৃষ্টি হয়।

বৈজ্ঞানিক সূত্র বলছে, সাদা রং সূর্যের তাপ শোষণ করতে পারে না। তাই সাদা রং বেশিরভাগ তাপ বাইরের দিকে প্রতিফলিত করে। ফলে শরীর গরম হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। ফলে গাঢ় রঙের পোশাক গরমের মধ্যে এড়িয়ে চলাই ভালো। এমনকি হালকা রঙের যে কোনো পোশাকও পরতে পারেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর এনভায়রনমেন্টাল স্ট্যাডিজের গবেষক তোশিয়াকি ইচিনোসের নেতৃত্বে জাপানি বিজ্ঞানীদের একটি দল পোশাকের রং নিয়ে গবেষণা করেছিলেন। এই পরীক্ষার জন্য প্রখর রোদে ৯টি ম্যানকুইনে লাল থেকে হালকা সবুজ, হলুদ, নীল, কালো, সাদা বা গাঢ় সবুজসহ বিভিন্ন রঙের পোলো শার্ট পরান।

তারা প্রায় ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস (৮৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট) তাপমাত্রায় মাত্র ৫ মিনিট ম্যানকুইনগুলো রোদে রেখে কাপড়ের উপরিভাগের তাপমাত্রা পরীক্ষা করেন। সবচেয়ে শীতল ও উষ্ণতম পোলো শার্টের মধ্যে ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পার্থক্য লক্ষ্য করেন। সাদা পোলো শার্টের পৃষ্ঠের তাপমাত্রা ছিল প্রায় ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা গবেষণার সময় বাতাসের তাপমাত্রার সমান। কালো পোলো শার্টের পৃষ্ঠের তাপমাত্রা ছিল ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১২২ ফারেনহাইট)।

গবেষকরা জানান, সাদার পরে যে রংগুলো শরীরকে শীতল রাখে, সেগুলো হলো- হলুদ, ধূসর ও লাল। যদিও লাল রংকে বেশিরভাগই ‘উষ্ণ রং’ হিসেবে জানেন। বেগুনি রং ছিল মাঝখানে। ফলে গবেষকরা গরমে নীল, হালকা সবুজ, গাঢ় সবুজ ও কালো রঙের পোশাক পরতে নিষেধ করেছেন। রংগুলো বেশি তাপমাত্রা শোষণ করে।

বিজনেস আওয়ার/ ১১জুলাই / হাসান

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

গরমে দীর্ঘক্ষণ বাইরে থাকলে যে পোশাক পরবেন

পোস্ট হয়েছে : ০৩:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

বিজনেস আওয়ার ডেস্ক: বিভিন্ন কারণে আমাদের ঘরের বাইরে থাকতে হয়। তবে এই থাকার ধরন যদি হয় দীর্ঘক্ষণ, তাহলে অবশ্যই চিন্তার বিষয়। এর জন্য শুরুতেই ভাবতে হবে নিজের পোশাক নিয়ে। যদি প্রচণ্ড রোদে অবস্থান করতে হয়, তাহলে আরামদায়ক পোশাক পরা জরুরি। পোশাকটি যদি আরামদায়ক না হয়, তাহলে অস্বস্তির যেন শেষ নেই।

তাই এই গরমে পাতলা সুতির পোশাক পরার বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে রঙের বিষয়টিও বিবেচনা করতে হবে। আমরা হয়তো জানি না, গরমে কোন রঙের পোশাকে বেশি আরাম পাওয়া যাবে। যদি ধারণা থাকে, তবে সুতা এবং রং বিবেচনা করে পোশাক পরা উচিত। দিনটিকে স্বস্তিদায়ক করতে এই পোশাকের জুড়ি নেই।

ফ্যাশনবিদরা জানিয়েছেন, গরমে সাদা পোশাক পরলেই বেশি আরাম পাওয়া যায়। তবে শুধু সাদা নয়, শরীর ঠান্ডা রাখতে হালকা রঙের পোশাক পরা জরুরি। এসব পোশাকের ভেতর দিয়ে সহজে বাতাস চলাচল করতে পারে। ফলে গরমে কখনোই আঁটোসাঁটো পোশাক পরা উচিত নয়। এ ধরনের পোশাক পরলে বাতাস চলাচল করতে পারে না। ফলে ঘাম আটকে অস্বস্তি সৃষ্টি হয়।

বৈজ্ঞানিক সূত্র বলছে, সাদা রং সূর্যের তাপ শোষণ করতে পারে না। তাই সাদা রং বেশিরভাগ তাপ বাইরের দিকে প্রতিফলিত করে। ফলে শরীর গরম হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। ফলে গাঢ় রঙের পোশাক গরমের মধ্যে এড়িয়ে চলাই ভালো। এমনকি হালকা রঙের যে কোনো পোশাকও পরতে পারেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর এনভায়রনমেন্টাল স্ট্যাডিজের গবেষক তোশিয়াকি ইচিনোসের নেতৃত্বে জাপানি বিজ্ঞানীদের একটি দল পোশাকের রং নিয়ে গবেষণা করেছিলেন। এই পরীক্ষার জন্য প্রখর রোদে ৯টি ম্যানকুইনে লাল থেকে হালকা সবুজ, হলুদ, নীল, কালো, সাদা বা গাঢ় সবুজসহ বিভিন্ন রঙের পোলো শার্ট পরান।

তারা প্রায় ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস (৮৬ ডিগ্রি ফারেনহাইট) তাপমাত্রায় মাত্র ৫ মিনিট ম্যানকুইনগুলো রোদে রেখে কাপড়ের উপরিভাগের তাপমাত্রা পরীক্ষা করেন। সবচেয়ে শীতল ও উষ্ণতম পোলো শার্টের মধ্যে ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পার্থক্য লক্ষ্য করেন। সাদা পোলো শার্টের পৃষ্ঠের তাপমাত্রা ছিল প্রায় ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা গবেষণার সময় বাতাসের তাপমাত্রার সমান। কালো পোলো শার্টের পৃষ্ঠের তাপমাত্রা ছিল ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১২২ ফারেনহাইট)।

গবেষকরা জানান, সাদার পরে যে রংগুলো শরীরকে শীতল রাখে, সেগুলো হলো- হলুদ, ধূসর ও লাল। যদিও লাল রংকে বেশিরভাগই ‘উষ্ণ রং’ হিসেবে জানেন। বেগুনি রং ছিল মাঝখানে। ফলে গবেষকরা গরমে নীল, হালকা সবুজ, গাঢ় সবুজ ও কালো রঙের পোশাক পরতে নিষেধ করেছেন। রংগুলো বেশি তাপমাত্রা শোষণ করে।

বিজনেস আওয়ার/ ১১জুলাই / হাসান

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: