1. [email protected] : Asim : Asim
  2. [email protected] : anis : anis
  3. [email protected] : Admin : Admin
  4. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  5. [email protected] : Polash : Polash
  6. [email protected] : Rajowan : Rajowan
  7. [email protected] : Riyad : Riyad
  8. [email protected] : sattar miazi : sattar miazi
করোনার মধ্যেও ৯ মাসের ব্যবসায় ৬২ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস বেড়েছে
বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন

করোনার মধ্যেও ৯ মাসের ব্যবসায় ৬২ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস বেড়েছে

রেজোয়ান আহমেদ
  • পোস্ট হয়েছে : শনিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২০

করোনা মহামারির মধ্যেই আগের বছরের একইসময়ের তুলনায় চলতি বছরের ৯ মাসে বা ৩টি প্রান্তিকের (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর ২০) ব্যবসায় শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৬২ শতাংশ ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) বেড়েছে। এ সময় কোন কোন ব্যাংকের ইপিএস ৪০০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছে আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক। অপরদিকে ইপিএসে পতনে সবার উপরে রয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক।

ব্যাংকগুলোর ৯ মাসের অনিরীক্ষিত সমন্বিত আর্থিক হিসাব থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের মধ্যে চলতি বছরের ৯ মাসের ব্যবসায় ২৯টির আর্থিক হিসাব প্রকাশ করা হয়েছে। ইস্টার্ন ব্যাংকের পর্ষদ সভার এ সংক্রান্ত তারিখ ঘোষণা করা হলেও পরবর্তীতে তা স্থগিত করা হয়েছে। আর্থিক হিসাব প্রকাশ করা ২৯ ব্যাংকের মধ্যে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২০২০ সালের ৯ মাসে ১৮টি বা ৬২.০৭ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস বেড়েছে। আর ৯টি বা ৩১.০৩ শতাংশ ব্যাংকের ইপিএস কমেছে। এছাড়া ১টি বা ৩.৩৩ শতাংশ ব্যাংকের আগের বছরের থেকে লোকসান কম হয়েছে।

এ বিষয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সাবেক পরিচালক মিনহাজ মান্নান ইমন বিজনেস আওয়ারকে বলেন, করোনার মধ্যেও ব্যাংক খাতের মুনাফায় উত্থান শেয়ারবাজারের জন্য সুসংবাদ। এতে হয়তো বিনিয়োগকারীদের মনে কিছুটা হলেও আস্থা ফিরে আসবে। যা শেয়ারবাজারে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। আর ব্যাংক খাত যেহেতু শেয়ারবাজারের সবচেয়ে বড় খাত, তাই এই খাতের উত্থান-পতনে সূচকে বড় প্রভাব পড়ে।

আলোচিত সময়ে সবচেয়ে বেশি ইপিএস বেড়েছে আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের। ব্যাংকটির ৪৬৩ শতাংশ ইপিএস বেড়েছে। এরপরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২৫ শতাংশ বেড়েছে এক্সিম ব্যাংকের। আর ৮৬ শতাংশ বেড়ে ৩য় স্থানে রয়েছে ওয়ান ব্যাংক।

এদিকে সবচেয়ে বেশি ইপিএস হয়েছে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের। আগের বছরের থেকে ৩ শতাংশ বেড়ে ব্যাংকটির ইপিএস হয়েছে ৬.২৯ টাকা। এরপরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪.০৮ টাকা ইপিএস হয়েছে ট্রাস্ট ব্যাংকের। আর ৩.১৮ টাকা ইপিএস নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যমুনা ব্যাংক।

নিম্নে ইপিএস বৃদ্ধি পাওয়া ব্যাংকগুলোর আর্থিক অবস্থা তুলে ধরা হল-

ব্যাংকের নাম২০২০ সালের ৯ মাসের ইপিএস (টাকা)২০১৯ সালের ৯ মাসের ইপিএস (টাকা)বৃদ্ধির হার (শতকরা)
আল-আরাফাহ ব্যাংক১.৩৫০.২৪৪৬৩%
এক্সিম ব্যাংক১.৪৩০.৪৪২২৫%
ওয়ান ব্যাংক১.২১০.৬৫৮৬%
এবি ব্যাংক০.২৯০.১৮৬১%
ট্রাস্ট ব্যাংক৪.০৮২.৫৭৫৯%
রূপালি ব্যাংক০.৫০০.৪০২৫%
উত্তরা ব্যাংক৩.০৪২.৫৪২০%
দি সিটি ব্যাংক৩.০৪২.৫৮১৮%
ঢাকা ব্যাংক১.৩৬১.১৮১৫%
শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক১.৫৪১.৩৫১৪%
ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক১.৩৩১.১৮১৩%
যমুনা ব্যাংক৩.১৮২.৮৮১০%
পূবালী ব্যাংক২.৯৪২.৭২৮%
স্যোশাল ইসলামী ব্যাংক০.৭৭০.৭১৮%
ইসলামী ব্যাংক২.৩০২.১৯৫%
ডাচ-বাংলা ব্যাংক৬.২৯৬.১১৩%
ব্যাংক এশিয়া১.৯৭১.৯৪২%
মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক১.৬৮১.৬৭১%

২০২০ সালের ৯ মাসে সবচেয়ে বেশি হারে ইপিএস কমেছে আইএফআইসি ব্যাংকের। আগের বছরের তুলনায় ব্যাংকটির ইপিএস কমেছে ৪২ শতাংশ। এরপরে ৩১ শতাংশ কমে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে প্রাইম ব্যাংক। আর ২৮ শতাংশ কমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক।

নিম্নে ইপিএস হ্রাস পাওয়া ব্যাংকগুলোর আর্থিক অবস্থা তুলে ধরা হল-

ব্যাংকের নাম২০২০ সালের ৯ মাসের ইপিএস (টাকা)২০১৯ সালের ৯ মাসের ইপিএস (টাকা)কমার হার (শতকরা)
আইএফআইসি ব্যাংক০.৭৬১.৩২(৪২%)
প্রাইম ব্যাংক০.৯৩১.৩৪(৩১%)
ন্যাশনাল ব্যাংক০.৪৭০.৬৫(২৮%)
মার্কেন্টাইল ব্যাংক১.৭২২.২৫(২৪%)
ব্র্যাক ব্যাংক২.০১২.৫২(২০%)
ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক১.৪৫১.৭০(১৫%)
সাউথইস্ট ব্যাংক২.৩৯২.৮২(১৫%)
এনসিসি ব্যাংক১.৭৭২.০৩(১৩%)
প্রিমিয়ার ব্যাংক১.৫১১.৬৬(৯%)

অন্যান্য বছরের ন্যায় চলতি বছরের ৯ মাসেও আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের লোকসান হয়েছে। তবে আগের বছরের তুলনায় লোকসানের পরিমাণ কম হয়েছে।

ব্যাংকের নাম২০২০ সালের ৯ মাসের ইপিএস (টাকা)২০১৯ সালের ৯ মাসের ইপিএস (টাকা)কমার হার (শতকরা)
আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক(০.১৫)(০.৪৯)৬৯%

বিজনেস আওয়ার/৩১ অক্টোবর, ২০২০/আরএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
এ বিভাগের আরো সংবাদ