ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাকিব–রাজ্জাকের জন্যেই অবসর নিয়েছিলাম: রফিক

  • পোস্ট হয়েছে : ০৫:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুন ২০২০
  • 14

স্পোর্টস ডেস্ক : ২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিদায় বলেছিলেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি স্পিনার মোহাম্মদ রফিক। তাকে সাকিব আল হাসান ও আব্দুর রাজ্জাকদের পথ প্রদর্শক বললেও হয়ত ভুল বলা হবে না। তার প্রতিভা দেখে মুগ্ধ ছিলো ক্রিকেট প্রেমীরা।

কিন্তু নির্বাচকদের চাপে বিদায় নিতে হয়েছিল তাকে। কারণ তখন সাকিব, রাজ্জাকরা ছিলেন তরুণ। সেই সাথে তারা ভালো পারফর্মও করতো। তবে রফিকও ছিলেন দারুণ ফর্মে। কিন্তু ঐ সময় রফিক খেললে বসে থাকতে হইতো রফিক বা সাকিবকে।

আর সেজন্যই রফিকে চাপ দিয়েছেন নির্বাচকরা। এক পর্যায়ে বোর্ডের চাপ সামলাতে না পেরে অবসরের ঘোষণা দেন তিনি। সম্প্রতি বিডিক্রিকটাইমকে এক সাক্ষাৎকারে এমন তথ্যই জানান রফিক।

তিনি বলেন, আমার বিদায়টা ভালোভাবে হয়নি। নির্বাচকরা আমাকে বলতো অবসর নিতে। অনুশীলনে গেলে বলতো তুমি অবসর নাও। তোমার জন্য আমরা দল ঠিক করতে পারছি না। আমি বলতাম দেখো, আমি তো পারফর্ম করেই দলে আছি। তারপরেও খুব বিরক্ত করতো।

তখন আমি চিন্তা করলাম যে মানুষের কথা না শুনে আমি নিজেই অবসর নিয়ে নিই। তখনই অবসর নিয়ে নিলাম। দেখা যায় আমার জায়গায় সাকিব ভালো খেলছে, আব্দুর রাজ্জাক বসে থাকছে কিংবা কখনো সাকিব বসে থাকছে আর আমি নিয়মিত খেলছি।

ওই জায়গাটা চিন্তা করে দেখলাম, সাকিব কিংবা আব্দুর রাজ্জাক যদি আমার থেকে দুই বছর বেশি খেলতে পারে ওই চিন্তাটা করেই অবসরের সিদ্ধান্ত নিলাম। ওরা কিন্তু দীর্ঘ সময় খেলছে। আমি যদি খেলতাম দেখা যেত এখান থেকে যেকোন একজন বাদ পড়ত।

উল্লেখ্য, ১৯৯৫ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় রফিকের। এরপর থেকে ১২৫ ওয়ানডে খেলে ১১৯১ রান এবং উইকেট শিকার করেছেন ১২৫টি। এছাড়া ৩৩ টেস্টে ১০৫৯ রানের পাশাপাশি প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ১০০ উইকেট শিকার করেন কিংবদন্তী এই বাঁহাতি স্পিনার।

বিজনেস আওয়ার/০১ জুন, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

সাকিব–রাজ্জাকের জন্যেই অবসর নিয়েছিলাম: রফিক

পোস্ট হয়েছে : ০৫:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুন ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক : ২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিদায় বলেছিলেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি স্পিনার মোহাম্মদ রফিক। তাকে সাকিব আল হাসান ও আব্দুর রাজ্জাকদের পথ প্রদর্শক বললেও হয়ত ভুল বলা হবে না। তার প্রতিভা দেখে মুগ্ধ ছিলো ক্রিকেট প্রেমীরা।

কিন্তু নির্বাচকদের চাপে বিদায় নিতে হয়েছিল তাকে। কারণ তখন সাকিব, রাজ্জাকরা ছিলেন তরুণ। সেই সাথে তারা ভালো পারফর্মও করতো। তবে রফিকও ছিলেন দারুণ ফর্মে। কিন্তু ঐ সময় রফিক খেললে বসে থাকতে হইতো রফিক বা সাকিবকে।

আর সেজন্যই রফিকে চাপ দিয়েছেন নির্বাচকরা। এক পর্যায়ে বোর্ডের চাপ সামলাতে না পেরে অবসরের ঘোষণা দেন তিনি। সম্প্রতি বিডিক্রিকটাইমকে এক সাক্ষাৎকারে এমন তথ্যই জানান রফিক।

তিনি বলেন, আমার বিদায়টা ভালোভাবে হয়নি। নির্বাচকরা আমাকে বলতো অবসর নিতে। অনুশীলনে গেলে বলতো তুমি অবসর নাও। তোমার জন্য আমরা দল ঠিক করতে পারছি না। আমি বলতাম দেখো, আমি তো পারফর্ম করেই দলে আছি। তারপরেও খুব বিরক্ত করতো।

তখন আমি চিন্তা করলাম যে মানুষের কথা না শুনে আমি নিজেই অবসর নিয়ে নিই। তখনই অবসর নিয়ে নিলাম। দেখা যায় আমার জায়গায় সাকিব ভালো খেলছে, আব্দুর রাজ্জাক বসে থাকছে কিংবা কখনো সাকিব বসে থাকছে আর আমি নিয়মিত খেলছি।

ওই জায়গাটা চিন্তা করে দেখলাম, সাকিব কিংবা আব্দুর রাজ্জাক যদি আমার থেকে দুই বছর বেশি খেলতে পারে ওই চিন্তাটা করেই অবসরের সিদ্ধান্ত নিলাম। ওরা কিন্তু দীর্ঘ সময় খেলছে। আমি যদি খেলতাম দেখা যেত এখান থেকে যেকোন একজন বাদ পড়ত।

উল্লেখ্য, ১৯৯৫ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় রফিকের। এরপর থেকে ১২৫ ওয়ানডে খেলে ১১৯১ রান এবং উইকেট শিকার করেছেন ১২৫টি। এছাড়া ৩৩ টেস্টে ১০৫৯ রানের পাশাপাশি প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ১০০ উইকেট শিকার করেন কিংবদন্তী এই বাঁহাতি স্পিনার।

বিজনেস আওয়ার/০১ জুন, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: