1. [email protected] : Asim : Asim
  2. [email protected] : anis : anis
  3. [email protected] : Admin : Admin
  4. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  5. [email protected] : Polash : Polash
  6. [email protected] : Rajowan : Rajowan
  7. [email protected] : Riyad : Riyad
  8. [email protected] : sattar miazi : sattar miazi
ঝাঁজ কমেছে পেঁয়াজের
রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০১:৩২ অপরাহ্ন

ঝাঁজ কমেছে পেঁয়াজের

  • পোস্ট হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২১

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : সরকারঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে টানা দুই দফা বাড়ার পর রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে দাম কমেছে পেঁয়াজের। গত দুইদিনে খুচরা পর্যায়ে কেজিতে ৫ টাকা এবং পাইকারিতে ৭ টাকা পর্যন্ত কমেছে পেঁয়াজের দাম।

পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজারে এখন ভালো মানের হালি পেঁয়াজে ভরপুর। বাজারে পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকলেও ক্রেতা কম। যার কারণে দামও কমে গেছে। ক্রেতারা আবার অস্বাভাবিক আচরণ না করলে সহসা পেঁয়াজের দাম বাড়ার সম্ভাবনা কম।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, লকডাউনের আতঙ্কে দুইদিন মানুষ প্রচুর পেঁয়াজ কিনেছেন। ক্রেতাদের বাড়তি ক্রয়ের কারণে বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহ কমে যায়। এ কারণে দাম বাড়ে।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার সুত্রে জানা গেছে, ভালো মানের দেশি পেঁয়াজের খুচরা পর্যায়ে কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩৫ টাকা। দু’দিন আগে এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছিল ৪০/৪৫ টাকা কেজি। অপরদিকে পাইকারিতে দেশি পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৮-২৯ টাকা, যা দু’দিন আগে ছিল ৩৫ টাকা।

এ প্রসঙ্গে মালিবাগ হাজীপাড়ার এক পেঁয়াজ ব্যবসায়ী বলেন, পাইকারিতে দাম বাড়ায় দু’দিন আমরা পেঁয়াজের কেজি ৪০ টাকায় বিক্রি করেছি। এখন পাইকারিতে দাম কমেছে। এ কারণে আমরাও দাম কমিয়ে ৩৫ টাকা কেজি বিক্রি করছি।

কারওয়ানবাজারের এক পাইকারি ব্যবসায়ী বলেন, পাইকারি বাজারে এখন যে পেঁয়াজ পাওয়া যাচ্ছে, তার সবই হালি পেঁয়াজ। বাজারে ভালো মানের এই পেঁয়াজের প্রচুর সরবরাহ রয়েছে। কিন্তু ক্রেতা খুব কম। এ কারণে দাম কমে গেছে।

তিনি বলেন, এর আগে লকডাউন আতঙ্কে ক্রেতারা বাড়তি পরিমাণে পেঁয়াজ কিনে রেখেছেন। যে কারণে দু’দিন বাড়তি কেনার কারণে পেঁয়াজের একটু দাম বেড়ে ছিল। বিক্রি কমে যাওয়া দামও কমেছে। রোজার আগে পেঁয়াজের দাম নতুন করে বাড়ার সম্ভাব না খুব কম। বরং কেজিতে দাম আরও কমতে পারে।

রামপুরার এক ব্যবসায়ী বলেন, পেঁয়াজের দাম কখন কী হয় বলা মুশকিল। দু’দিন আগেই দু’দফা দাম বেড়ে কেজি ৪০ টাকা হয়েছিল। এখন আবার দাম কমে ৩৫ টাকা হয়েছে। দাম কমলেও ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না। দু’দিন ধরে পেঁয়াজের বিক্রি নেই বললেই চলে। এ অবস্থা থাকলে সামনে পেঁয়াজের দাম আরও কমতে পারে।

বাড্ডার ব্যবসায়ী আলী ইমাম বলেন, হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম কমে যাওয়ায় লোকসানের মধ্যে পড়েছি। আড়ৎ থেকে ৩৫ টাকা কেজি কিনে আনা পেঁয়াজ এখন ৩৫ টাকা কেজি বিক্রি করতে হচ্ছে। ৩৫ টাকা কেজি কেনা পেঁয়াজ এখনও এক মণের ওপরে রয়েছে। সামনে দাম কমে গেলে লোকসান আরও বাড়বে।

বিজনেস আওয়ার/০৮ এপ্রিল, ২০২১/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
এ বিভাগের আরো সংবাদ
lanka-bangla-ibroker-businesshour24