1. [email protected] : anjuman : anjuman
  2. [email protected] : Admin : Admin
  3. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  4. [email protected] : Polash : Polash
  5. [email protected] : Rajowan : Rajowan
  6. [email protected] : Shahin : Shahin
শাশাঁ ডেনিমসের মুনাফা ব্যাংকের পেটে
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন

শাশাঁ ডেনিমসের মুনাফা ব্যাংকের পেটে

  • পোস্ট হয়েছে : সোমবার, ৬ জুন, ২০২২
ShaSha-denims

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : বস্ত্র খাতের শাশাঁ ডেনিমসের চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে (জুলাই ২১-মার্চ ২২) প্রায় ৮৭৭ কোটি টাকার পণ্য বিক্রি বা আয় হয়েছে। আগের অর্থবছরের থেকে ৩২ শতাংশ বেড়ে এই পরিমাণ বিক্রি হয়েছে। এই বিশাল বিক্রির পরেও কোম্পানিটির নিট মুনাফা ২০ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। যা বিক্রির তুলনায় মাত্র ২.৩২ শতাংশ। এর অন্যতম কারন হিসাবে রয়েছে কোম্পানিটির মুনাফার বড় অংশই চলে যায় ব্যাংকের সুদ প্রদানে।

দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে (জুলাই ২১-মার্চ ২২) শাশাঁ ডেনিমসের ৮৭৬ কোটি ৮০ লাখ টাকার পণ্য বিক্রি হয়েছে। যার পরিমাণ আগের বছরের একই সময়ে হয়েছিল ৬৬৬ কোটি ৯ লাখ টাকা। এ হিসাবে বিক্রি বেড়েছে ২১০ কোটি ৭১ লাখ টাকার বা ৩২ শতাংশ।

এদিকে কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের ৩য় প্রান্তিকে বিক্রি হয়েছে ৩১০ কোটি ৪ লাখ টাকার পণ্য। যার পরিমাণ আগের অর্থবছরের একইসময়ে হয়েছিল ১৯৯ কোটি টাকার। এ হিসাবে বিক্রি বেড়েছে ১১১ কোটি ৪ লাখ টাকার বা ৫৬ শতাংশ।

এই বিশাল পরিমাণ বিক্রির পরেও কোম্পানিটির নিট মুনাফার পরিমাণ খুবই কম। যার প্রধান কারন হিসাবে রয়েছে ব্যাংকের সুদজনিত ব্যয়। কোম্পানিটির মুনাফার বড় অংশই চলে যাচ্ছে ব্যাংকের পকেটে।

শাশাঁ ডেনিমসের চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে পরিচালন মুনাফা হয়েছে ৮০ কোটি ৪০ লাখ টাকা। কিন্তু এই মুনাফার মধ্য থেকে ব্যাংককে সুদের জন্য দিতে হয়েছে ৫৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা। যাতে করপূর্ব মুনাফা নেমে আসে ২৬ কোটি ৯৭ লাখ টাকায়।

আরও পড়ুন…….
অর্ধেকে নেমে এসেছে সোনালি পেপারের মূল ব্যবসায় মুনাফা

মুনাফার অধিকাংশ ব্যাংককে দেওয়া শাশাঁ ডেনিমস বড় ঋণে জড়িয়ে পড়েছে। এ কোম্পানিটির গত ৩১ মার্চ বিভিন্ন ব্যাংক ও লিজিং কোম্পানির কাছে দায়ের পরিমাণ রয়েছে ৬৭৪ কোটি টাকা। এরমধ্যে দীর্ঘমেয়াদি ১৪২ কোটি ৪৯ লাখ টাকার ঋণ ও ১৮ কোটি ৬ লাখ টাকার লীজজনিত দায় রয়েছে। এছাড়া ৪৮৭ কোটি ৩ লাখ টাকার স্বল্প মেয়াদি ঋণ ও দীর্ঘমেয়াদি ঋণের কারেন্ট পোরশন হিসাবে ২৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকা এবং লীজের কারেন্ট পোরশন হিসাবে ৩ কোটি ৫ লাখ টাকার দায় রয়েছে।

কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে বিক্রি মূল্য থেকে পরিচালন ব্যয়, সুদজনিত ব্যয় ও কর সঞ্চিতি বিয়োগ এবং অন্যান্য আয় যোগ শেষে নিট মুনাফা দাড়িঁয়েছে ২০ কোটি ৩৬ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ১.৪৫ টাকা। যা আগের বছরের একই সময়ে হয়েছিল ১২ কোটি ৫৯ লাখ টাকা বা শেয়ারপ্রতি ০.৬৩ টাকা। এ হিসাবে নিট মুনাফা বেড়েছে ৮ কোটি ৪ লাখ টাকার বা ৬৪ শতাংশ।

মুনাফায় এই উত্থানের কারন হিসাবে শাশাঁ ডেনিমস কর্তৃপক্ষ আর্থিক হিসাবে জানিয়েছেন, ৯ মাসে কোম্পানির উল্লেখযোগ্য বিক্রি হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৪১ কোটি ৪ লাখ টাকার পরিশোধিত মূলধনের শাশাঁ ডেনিমসে ৬০২ কোটি ২৭ লাখ টাকার নিট সম্পদ রয়েছে। যাতে কোম্পানিটির গত ৩১ মার্চ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪২.৭০ টাকায়।

বিজনেস আওয়ার/০৬ জুন, ২০২২/আরএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
আর্কাইভ