1. [email protected] : Habib : Habib
  2. [email protected] : Admin : Admin
  3. [email protected] : Jenny : Jenny
  4. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  5. [email protected] : Polash : Polash
  6. [email protected] : Rajowan : Rajowan
  7. [email protected] : Shahin : Shahin
  8. [email protected] : woishi : woishi
যোগ্য স্টার্টআপ কোম্পানি অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পাবে, অযোগ্যরা না
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০২:৪৫ অপরাহ্ন

যোগ্য স্টার্টআপ কোম্পানি অর্থ উত্তোলনের সুযোগ পাবে, অযোগ্যরা না

  • পোস্ট হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, অবশ্যই আমরা স্টার্টআপ কোম্পানিকে অর্থায়নে সাহায্য করব। তবে যোগ্যরাই পাবে। অযোগ্যদের সুযোগ দিয়ে পরিবেশ নষ্ট করব না।

বৃহস্পতিবার (০৪ আগস্ট) রাজধানীর নিকুঞ্জের ডিএসই ভবনে ‘ক্যাপিটাল মার্কেট অফ বাংলাদেশ প্রস্পেক্ট অ্যান্ড অপারচুনিটিস ফর টেক স্ট্যার্টআপ অ্যান্ড গ্রোথ স্টেজ কোম্পানিজ’ শীর্ষক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, স্টার্টআপ কোম্পানির মুনাফা করতে সময় লাগে। তবে লোকসানে থাকলেও ছাড় বা সুযোগ দিয়ে (ওয়েভার) শেয়ারবাজারে আসতে দেওয়ার সুযোগ আছে। তবে আইন পরিবর্তন করে সব লোকসানি স্টার্টআপ কোম্পানিকে শেয়ারবাজারে আনা যাবে না। তাহলে যেসব কোম্পানি কর্তৃপক্ষ ব্যক্তি স্বার্থ উদ্ধারে ফন্দিফিকির করে, তারা সুযোগ নেবে।

তিনি বলেন, ব্যাংক গ্রাহকদের কাছ থেকে আমানত নিয়ে ঋণ দেয়। এই অন্যদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ঋণ দিতে ব্যাংকগুলোকে অনেক সাবধান হতে হয়। এছাড়া জামানত নিতে হয়। কিন্তু স্টার্টআপ কোম্পানিগুলো নতুন জেনারেশন গঠন করে। যাদের স্টার্টআপ কোম্পানি চালানোর জ্ঞান থাকলেও সেভাবে সম্পদ থাকে না। এ জাতীয় কোম্পানিকে কমিশন সহযোগিতা করবে।

তিনি আরও বলেন, স্টার্টআপ কোম্পানিকে সহযোগিতা করলে যদি দেশ লাভবান হয়, তাহলে কেনো সহযোগিতা করব না। তবে এ জাতীয় কোম্পানিগুলোকে শেয়ারবাজারে আসতে চাইলে অবশ্যই কমপক্ষে ১০ শতাংশ শেয়ার ইস্যু করতে হবে। অন্যথায় আমরা অর্থ উত্তোলনের সুযোগ দেব না।

স্টার্টআপ কোম্পানিগুলোর জন্য নতুন বোর্ড গঠন করা বিবেচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএসইসির এই চেয়ারম্যান। কারন স্টার্টআপ কোম্পানিগুলো মূল বা এসএমই মার্কেটে এসে খাপ খাওয়াতে পারবে না। তবে উন্নতি করার পরে এসএমইতে দেওয়া হবে। আরও উন্নতির পরে এসএমই থেকে মূল মার্কেটে নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আমাদেরকে কোন কোম্পানির অর্থ উত্তোলনের সুযোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদের দিকটিও দেখতে হয়। তাই সবকিছু কোম্পানি কর্তৃপক্ষের মনো:পুত নাও হতে পারে। তবে এটা কাউকে নিরুৎসাহিত করার জন্য না করি না। কারন আমাদেরকে কোম্পানির পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের স্বার্থের দিকটিও বিবেচনা করতে হয়।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে বিএসইসির কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের দুয়ার সবসময় স্টার্টআপ কোম্পানির জন্য খোলা। আপনারা কমিশনে আসেন। আপনাদের কথা গুরুত্ব সহকারে শুনতে চাই। সমস্যা থাকলে, তা সমাধান করা হবে। আমাদের দেশে ফান্ডের সমস্যা নাই, আছে স্পৃহার অভাব।

এসময় তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইর পিই ১৫ এর কাছাকাছি। যা বিনিয়োগের জন্য খুবই ভালো।

অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান মো: ইউনুসুর রহমান।

বিজনেস আওয়ার/০৪ আগস্ট, ২০২২/আরএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরো সংবাদ

পিই রেশিও বেড়েছে

  • ১৯ আগস্ট ২০২২
  • দাম কমলো স্বর্ণের

  • ১৭ আগস্ট ২০২২