1. [email protected] : Anissuzzaman : Anissuzzaman
  2. [email protected] : anjuman : anjuman
  3. [email protected] : Admin : Admin
  4. [email protected] : mujahid : mujahid
  5. [email protected] : Nayan Babu : Nayan Babu
  6. [email protected] : Rajowan : Rajowan
হিরুর কারসাজির শেয়ার মানেই সোনালি পেপারের ঝাঁপিয়ে পড়া
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৫৮ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English
বাংলা বাংলা English English

হিরুর কারসাজির শেয়ার মানেই সোনালি পেপারের ঝাঁপিয়ে পড়া

  • পোস্ট হয়েছে : মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২৩

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে বর্তমানে কারসাজিকর হিসেবে সবচেয়ে বেশি আলোচিত নাম আবুল খায়ের হিরু। যিনি এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি কোম্পানিতে কারসাজির দায়ে আর্থিক জরিমানার কবলে পড়েছেন। আর এই কারসাজিকারের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িত সোনালি পেপার অ্যান্ড বোর্ড মিলসের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুস। এটা এখন ওপেন সিক্রেট। যিনি হিরুর সব কারসাজির শেয়ারেই সোনালি পেপার থেকে অর্থায়নের মাধ্যমে দর বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখেন।

দেখা গেছে, সোনালি পেপারের নতুন করে খোলা ১টিসহ মোট ৩টি বিও হিসাব রয়েছে। এরমধ্যে ১টি রয়েছে এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট। বাকি দুটি হচ্ছে-ইবিএল সিকিউরিটিজ ও এবিএসিএআই ইনভেস্টমেন্টে।

এই ৩টি বিও’র মাধ্যমে সোনালি পেপার থেকে জেনেক্স ইনফোসিস, আইপিডিসি ফাইন্যান্স, ফরচুন সুজ, বিডিকম অনলাইন ও এক্সেলসিওর সুজে বিনিয়োগ করা হয়েছে। যার সবগুলোই হিরুর গেম্বলিং আইটেম হিসেবে বাজারে পরিচিত। এছাড়া প্রায় সবগুলো কোম্পানির শেয়ার কারসাজিতেই জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

চলতি অর্থবছরের ১ম প্রান্তিক শেষে সোনালি পেপারের সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ দাঁড়িয়েছে হিরুর গেম্বলিং আইটেম আইপিডিসি ফাইন্যান্সে। এই কোম্পানিটিতে সোনালি পেপারের এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের বিও থেকে বিনিয়োগ করা হয়েছে ১৩ কোটি ৮ লাখ টাকা। আর ইবিএল সিকিউরিটিজের বিও থেকে করা হয়েছে ৩৮ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। অর্থাৎ ১ কোম্পানিতেই সোনালি পেপার থেকে বিনিয়োগ করা হয়েছে ৫১ কোটি ৯২ লাখ টাকা। যা কোম্পানিটির শেয়ারবাজারে মোট বিনিয়োগের ৯০ শতাংশ। অথচ এ খাতের বিশেষজ্ঞরা সবসময় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অনেক কোম্পানিকে বেছে নেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন। এতে করে ঝুঁকি কমে আসে।

সোনালি পেপার থেকে চলতি অর্থবছরের ১ম প্রান্তিকে আইপিডিসি ফাইন্যান্সে বিনিয়োগ করা হয়েছে, সেসময় শেয়ারটি নিয়ে পুরো কারসাজি শুরু হয়। আইপিডিসির শেয়ারটি চলতি অর্থবছরের ১ম প্রান্তিকের শুরুতে ছিল ৫২.৭০ টাকা। যে শেয়ারটি ২৫ আগস্ট ৭৬.২০ টাকায় উঠেছিল। যেটি ১ম প্রান্তিক শেষে ২৯ সেপ্টেম্বর ছিল ৬৬.৫০ টাকায়। তবে শেয়ারটি গত ১১ অক্টোবর থেকে ফ্লোর প্রাইস ৫৭.৬০ টাকায় অবস্থান করছে।

গেম্বলার হিরুর সঙ্গে তাল মিলিয়ে বিনিয়োগ করলেও ১ম প্রান্তিক শেষে আইপিডিসি ফাইন্যান্সে যে পরিমাণ বিনিয়োগ (কস্ট মূল্যে) দাঁড়িয়েছে সোনালি পেপারের, তার বাজার দর নিচে নেমে এসেছে। এতে করে সোনালি পেপার এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টর বিওতে ৭ লাখ টাকা ও ইবিএল সিকিউরিটিজের বিওতে ৩১ লাখ টাকার আনরিয়েলাইজড লোকসান রয়েছে।

একইসময়ে হিরুর আরেক গেম্বলিং আইটেম বিডিকম অনলাইনে বিনিয়োগ করেছে ইউনুসের সোনালি পেপার। ইবিএল সিকিউরিটিজের বিও থেকে বিডিকম অনলাইনে চলতি অর্থবছরের ১ম প্রান্তিক শেষে সোনালি পেপারের বিনিয়োগ রয়েছে ১ কোটি ৪১ লাখ টাকা। যার বাজার দর ছিল ১ কোটি ৪৫ লাখ টাকা।

বিজনেস আওয়ার/১৭ জানুয়ারি, ২০২৩/আরএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
এ বিভাগের আরো সংবাদ

ঋণের প্রভিশনিং কমলো ১ শতাংশ

  • ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • মূলধন বাড়লেও লেনদেনে ভাটা

  • ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • লুজারের শীর্ষে প্রগতি লাইফ

  • ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩