ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দ্রুত লকডাউন তুলে নেয়ায় ফের মহামারির শঙ্কা ডব্লিউএইচও’র

  • পোস্ট হয়েছে : ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০
  • 59

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমে যাওয়ায় যেসব দেশে লকডাউন তুলে নিয়েছে, সেখানে আবারও সংক্রমণ বেড়ে যেতে পারে পারে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সোমবার এক ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে সংস্থাটির হেলথ ইমারজেন্সিজ প্রোগ্রামের নির্বাহী পরিচালক ডা. মাইকেল রায়ান এ আশঙ্কার কথা জানান।

তিনি বলেন, বিশ্বের অনেক দেশেই সংক্রমণ কমলেও মধ্য ও দক্ষিণ আমেরিকা, দক্ষিণ এশিয়া এবং আফ্রিকায় এর প্রকোপ বাড়ছে। মহামারি অনেক সময় ঢেউয়ের মতো আসে। অর্থাৎ, যেখানে প্রথম ঢেউ প্রশমিত হয়েছে সেখানে আবারও সংক্রমণ ফিরে আসতে পারে। এছাড়া, প্রথম ঢেউয়ের মধ্যে কড়াকড়ি দ্রুত তুলে নিলে সংক্রমণের হার আরও বেশি গতিতে বাড়ারও সম্ভাবনা রয়েছে।

ডা. মাইকেল বলেন, আমরা যখন দ্বিতীয় ঢেউয়ের কথা বলি, স্বাভাবিকভাবেই সেখানে রোগের প্রথম ঢেউ থাকবে এবং কয়েকমাস পর এর পুনরাবৃত্তি ঘটবে। অনেক দেশেই কয়েক মাসের মধ্যে এটি বাস্তবতায় পরিণত হতে পারে। আমাদের জেনে রাখা দরকার, যেকোনও সময় এই রোগের সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়তে পারে। আমরা ধরে নিতে পারি না যে, সংক্রমণ কমছে মানে এটি কমতেই থাকবে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার কমে যাওয়ায় সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ইতালি, জার্মানি, স্পেনসহ অনেক দেশই লকডাউনের কড়াকড়ি শিথিল করেছে এবং ব্যবসায়িক কার্যক্রম ফের চালু করেছে। এক্ষেত্রে সবাইকে এখনও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ বাড়তি সতর্কতা মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে ডব্লিউএইচও। সূত্র: রয়টার্স

বিজনেস আওয়ার/২৬ মে, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

দ্রুত লকডাউন তুলে নেয়ায় ফের মহামারির শঙ্কা ডব্লিউএইচও’র

পোস্ট হয়েছে : ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমে যাওয়ায় যেসব দেশে লকডাউন তুলে নিয়েছে, সেখানে আবারও সংক্রমণ বেড়ে যেতে পারে পারে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সোমবার এক ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে সংস্থাটির হেলথ ইমারজেন্সিজ প্রোগ্রামের নির্বাহী পরিচালক ডা. মাইকেল রায়ান এ আশঙ্কার কথা জানান।

তিনি বলেন, বিশ্বের অনেক দেশেই সংক্রমণ কমলেও মধ্য ও দক্ষিণ আমেরিকা, দক্ষিণ এশিয়া এবং আফ্রিকায় এর প্রকোপ বাড়ছে। মহামারি অনেক সময় ঢেউয়ের মতো আসে। অর্থাৎ, যেখানে প্রথম ঢেউ প্রশমিত হয়েছে সেখানে আবারও সংক্রমণ ফিরে আসতে পারে। এছাড়া, প্রথম ঢেউয়ের মধ্যে কড়াকড়ি দ্রুত তুলে নিলে সংক্রমণের হার আরও বেশি গতিতে বাড়ারও সম্ভাবনা রয়েছে।

ডা. মাইকেল বলেন, আমরা যখন দ্বিতীয় ঢেউয়ের কথা বলি, স্বাভাবিকভাবেই সেখানে রোগের প্রথম ঢেউ থাকবে এবং কয়েকমাস পর এর পুনরাবৃত্তি ঘটবে। অনেক দেশেই কয়েক মাসের মধ্যে এটি বাস্তবতায় পরিণত হতে পারে। আমাদের জেনে রাখা দরকার, যেকোনও সময় এই রোগের সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়তে পারে। আমরা ধরে নিতে পারি না যে, সংক্রমণ কমছে মানে এটি কমতেই থাকবে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার কমে যাওয়ায় সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ইতালি, জার্মানি, স্পেনসহ অনেক দেশই লকডাউনের কড়াকড়ি শিথিল করেছে এবং ব্যবসায়িক কার্যক্রম ফের চালু করেছে। এক্ষেত্রে সবাইকে এখনও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ বাড়তি সতর্কতা মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে ডব্লিউএইচও। সূত্র: রয়টার্স

বিজনেস আওয়ার/২৬ মে, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: