ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোপা জয়ের পথে এক ধাপ এগুলো বায়ার্ন

  • পোস্ট হয়েছে : ১১:১৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৭ মে ২০২০
  • 50

স্পোর্টস ডেস্ক : জার্মান বুন্দেসলিগায় চলমান আসরের প্রথম থেকেই বায়ার্ন মিউনিখ, বুরুশিয়া ডর্টমুন্ড এর মধ্যে কঠিন লড়াই হয়ে আসছিল। দুদলের মুখোমুখি দ্বিতীয় দেখায় ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে জিতে শিরোপার পথে বড় এক লাফ দিল বায়ার্ন। ম্যাচটিতে ১-০ গোলে জিতেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

করোনা ভাইরাসের কারণে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা চলে। সিগনাল-ইদুনা পার্কে টানা সাতবারের চ্যাম্পিয়নদের আতিথেয়তা জানায় ডর্টমুন্ড। তবে পুরো মৌসুমে দুর্দান্ত দাপট দেখানো ডর্টমুন্ড স্ট্রাইকার আর্লিং হালান্ড এদিন সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ দেখা যায়। তবে খেলার প্রথমার্ধের শেষদিকে লিড নেয় বায়ার্ন। ৪৩তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দারুণ এক চিপে গোল করেন জশুয়া কিমিচ। ডর্টমুন্ডের সুইস গোলরক্ষক রোমান বুর্কি পিছিয়ে গিয়ে বলে হাত লাগান ঠিকই, কিন্তু আটকে রাখতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধে ভালো একটি সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি হালান্ড। ৭২তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে জেডন স্যানচোর ক্রসে পা লাগাতে গিয়ে বেকায়দায় পা পড়ে ব্যথা পান হলান্ড। সঙ্গে সঙ্গে তাকে তুলে জিওভানি রেইনাকে নামান ডর্টমুন্ড কোচ।

যদিও এর আগে ৫৬তম মিনিটেই এগিয়ে রেফারির চোখ এড়িয়ে না গেলে এগিয়ে যেতে পারতো স্বাগতিকরা। হলান্ডের শট সামনে পড়ে যাওয়া ডিফেন্ডার জেরোমে বোয়াটেংয়ের হাতে লেগে বাইরে চলে যায়। কিন্তু রেফারির না দেখা ও কোনো আবেদন না হওয়ায় পেনাল্টি পাওয়া হয়নি!

শেষদিকে রবার্ট লেভান্ডোভস্কির দূরপাল্লার শট পোস্টে বাধা পেলে ব্যবধান দ্বিগুণ করা হয়নি বায়ার্নের। কিন্তু বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হওয়ায় দারুণ এক জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে হান্স ফ্লিকের দল। দুদলের প্রথম দেখায় ঘরের মাঠে ৪-০ গোলে জিতেছিল বায়ার্ন।

বিজনেস আওয়ার/২৭ মে, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

শিরোপা জয়ের পথে এক ধাপ এগুলো বায়ার্ন

পোস্ট হয়েছে : ১১:১৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৭ মে ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক : জার্মান বুন্দেসলিগায় চলমান আসরের প্রথম থেকেই বায়ার্ন মিউনিখ, বুরুশিয়া ডর্টমুন্ড এর মধ্যে কঠিন লড়াই হয়ে আসছিল। দুদলের মুখোমুখি দ্বিতীয় দেখায় ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে জিতে শিরোপার পথে বড় এক লাফ দিল বায়ার্ন। ম্যাচটিতে ১-০ গোলে জিতেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

করোনা ভাইরাসের কারণে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা চলে। সিগনাল-ইদুনা পার্কে টানা সাতবারের চ্যাম্পিয়নদের আতিথেয়তা জানায় ডর্টমুন্ড। তবে পুরো মৌসুমে দুর্দান্ত দাপট দেখানো ডর্টমুন্ড স্ট্রাইকার আর্লিং হালান্ড এদিন সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ দেখা যায়। তবে খেলার প্রথমার্ধের শেষদিকে লিড নেয় বায়ার্ন। ৪৩তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দারুণ এক চিপে গোল করেন জশুয়া কিমিচ। ডর্টমুন্ডের সুইস গোলরক্ষক রোমান বুর্কি পিছিয়ে গিয়ে বলে হাত লাগান ঠিকই, কিন্তু আটকে রাখতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধে ভালো একটি সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি হালান্ড। ৭২তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে জেডন স্যানচোর ক্রসে পা লাগাতে গিয়ে বেকায়দায় পা পড়ে ব্যথা পান হলান্ড। সঙ্গে সঙ্গে তাকে তুলে জিওভানি রেইনাকে নামান ডর্টমুন্ড কোচ।

যদিও এর আগে ৫৬তম মিনিটেই এগিয়ে রেফারির চোখ এড়িয়ে না গেলে এগিয়ে যেতে পারতো স্বাগতিকরা। হলান্ডের শট সামনে পড়ে যাওয়া ডিফেন্ডার জেরোমে বোয়াটেংয়ের হাতে লেগে বাইরে চলে যায়। কিন্তু রেফারির না দেখা ও কোনো আবেদন না হওয়ায় পেনাল্টি পাওয়া হয়নি!

শেষদিকে রবার্ট লেভান্ডোভস্কির দূরপাল্লার শট পোস্টে বাধা পেলে ব্যবধান দ্বিগুণ করা হয়নি বায়ার্নের। কিন্তু বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হওয়ায় দারুণ এক জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে হান্স ফ্লিকের দল। দুদলের প্রথম দেখায় ঘরের মাঠে ৪-০ গোলে জিতেছিল বায়ার্ন।

বিজনেস আওয়ার/২৭ মে, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: