ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জয়পুরহাটে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে ৪ জনের মৃত্যু

  • পোস্ট হয়েছে : ১১:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৭ মে ২০২০
  • 78

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক (জয়পুরহাট) : জয়পুরহাটে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে প্রায় ৪০টি গ্রাম লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে একই পরিবারের ৩ জন সহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ মে) রাত ১১টার দিকে জেলার বিভিন্ন এলাকার উপর দিয়ে এই ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায়।

মৃতরা হলেন- ক্ষেতলাল উপজেলার খলিশাগাড়ি গ্রামের দিনমজুর জয়নাল আবেদিনের স্ত্রী শিল্পী বেগম (২৮), তার দুই সন্তান নেওয়াজ (৮) ও নিয়ামুল (৩) এবং কালাই উপজেলার হারুঞ্জা আকন্দপাড়া গ্রামের মৃত সালামত আলীর স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৭০)।

জয়পুরহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হঠাৎ জয়পুরহাটের বিভিন্ন এলাকার উপর দিয়ে ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায়। ঘূর্ণিঝড়ে বিভিন্ন এলাকায় ঘরের উপরে গাছ ভেঙে পড়ে। এতে ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে তারা মারা যায়।

এছাড়া ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে প্রায় দুই হাজার বাড়ি-ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের টিনের চালা উড়ে গেছে। শত শত গাছ ও বিদ্যুতের শতাধিক খুঁটি ভেঙে গেছে। ক্ষেতলাল উপজেলার তিলাবদুল এলাকায় একটি খামারের ৪০ হাজার মুরগি মারা গেছে।

তিনি আরও বলেন, নিহতদের দাফনের জন্য ইতোমধ্যে ৫ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া আরও ১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। অন্যদিকে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করে যত শিগগির সম্ভব ক্ষতিগ্রস্তদের অনুদান দেয়া হবে।

জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার সালাম কবির জানান, মঙ্গলবার রাতে ক্ষেতলাল পৌর এলাকার খলিশাগাড়ী গ্রামে প্রচণ্ড ঝড় শুরু হলে ঘরের কাছের একটি গাছ ঘরের চালার ওপরে পড়ে। এতে মা ও তার সন্তানরা ঘরের দেয়ালের নিচে চাপা পড়েন।

ঝড় থেমে গেলে স্থানীয়রা মা ও সন্তানদের উদ্ধার করে ক্ষেতলাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথমে বড় সন্তান নেওয়াজ এবং তার কিছুক্ষণ পর মা শিল্পী ও ছোট সন্তান নিয়ামুলের মৃত্যু হয়। নিহতের স্বামী অন্য ঘরে থাকার কারণে তার কোনো ক্ষতি হয়নি।

বিজনেস আওয়ার/২৭ মে, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

জয়পুরহাটে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে ৪ জনের মৃত্যু

পোস্ট হয়েছে : ১১:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৭ মে ২০২০

বিজনেস আওয়ার প্রতিবেদক (জয়পুরহাট) : জয়পুরহাটে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে প্রায় ৪০টি গ্রাম লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে একই পরিবারের ৩ জন সহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ মে) রাত ১১টার দিকে জেলার বিভিন্ন এলাকার উপর দিয়ে এই ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায়।

মৃতরা হলেন- ক্ষেতলাল উপজেলার খলিশাগাড়ি গ্রামের দিনমজুর জয়নাল আবেদিনের স্ত্রী শিল্পী বেগম (২৮), তার দুই সন্তান নেওয়াজ (৮) ও নিয়ামুল (৩) এবং কালাই উপজেলার হারুঞ্জা আকন্দপাড়া গ্রামের মৃত সালামত আলীর স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৭০)।

জয়পুরহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হঠাৎ জয়পুরহাটের বিভিন্ন এলাকার উপর দিয়ে ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায়। ঘূর্ণিঝড়ে বিভিন্ন এলাকায় ঘরের উপরে গাছ ভেঙে পড়ে। এতে ঘরের দেয়াল চাপা পড়ে তারা মারা যায়।

এছাড়া ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে প্রায় দুই হাজার বাড়ি-ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের টিনের চালা উড়ে গেছে। শত শত গাছ ও বিদ্যুতের শতাধিক খুঁটি ভেঙে গেছে। ক্ষেতলাল উপজেলার তিলাবদুল এলাকায় একটি খামারের ৪০ হাজার মুরগি মারা গেছে।

তিনি আরও বলেন, নিহতদের দাফনের জন্য ইতোমধ্যে ৫ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া আরও ১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। অন্যদিকে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করে যত শিগগির সম্ভব ক্ষতিগ্রস্তদের অনুদান দেয়া হবে।

জয়পুরহাটের পুলিশ সুপার সালাম কবির জানান, মঙ্গলবার রাতে ক্ষেতলাল পৌর এলাকার খলিশাগাড়ী গ্রামে প্রচণ্ড ঝড় শুরু হলে ঘরের কাছের একটি গাছ ঘরের চালার ওপরে পড়ে। এতে মা ও তার সন্তানরা ঘরের দেয়ালের নিচে চাপা পড়েন।

ঝড় থেমে গেলে স্থানীয়রা মা ও সন্তানদের উদ্ধার করে ক্ষেতলাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথমে বড় সন্তান নেওয়াজ এবং তার কিছুক্ষণ পর মা শিল্পী ও ছোট সন্তান নিয়ামুলের মৃত্যু হয়। নিহতের স্বামী অন্য ঘরে থাকার কারণে তার কোনো ক্ষতি হয়নি।

বিজনেস আওয়ার/২৭ মে, ২০২০/এ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: