ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সানাই মাহবুবের দাম্পত্যজীবনে বিচ্ছেদের সুর

  • পোস্ট হয়েছে : ১১:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩
  • 9

বিনোদন ডেস্ক: আলোচিত-সমালোচিত মডেল ও অভিনেত্রী সানাই মাহবুবের দাম্পত্যজীবন ভালো যাচ্ছে না। এ কারণে বিচ্ছেদের পথে হাঁটছেন। আর এ বিচ্ছেদের জন্য স্বামী ও শাশুড়িকে অভিযুক্ত করলেন এ অভিনেত্রী।

সাম্প্রতিক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দাম্পত্য সমস্যা ও বিচ্ছেদের ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন সানাই। এবার সরাসরি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বললেন তিনি।

রোববার (২১ মে) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দেওয়ার পর থেকেই সেই গুঞ্জন আরও পোক্ত হয়। সেখানে স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন সানাই। শাশুড়ির জন্য আমাদের সংসার এখন ভাঙনের পথে। এ নিয়ে স্বামীকে কিছু বললেও চুপ থাকে সে।

আগামী ৭ জুন কোর্টের মাধ্যমে স্বামী আবু সালেহ মুসার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হবে বলেও জানিয়েছেন আলোচিত এ মডেল। তিনি বলেন, আমাদের আর একসঙ্গে থাকা হচ্ছে না। একটি সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য দুজনের চেষ্টা প্রয়োজন। কিন্তু ওর মাঝে আমি সেটা দেখি না।

এছাড়া একই দিন ফেসবুকে এক পোস্টে তিনি লেখেন, যে স্বামী বোঝেনি তার স্ত্রী তার কাছে কতো টুকু দামি। ছেড়ে দেওয়াই উত্তম সেই পুরুষের হাত যে বোঝেনি নারীর কদর।

এই পোস্ট দেওয়ার কয়েক দিন আগেই অন্য এক পোস্টে তিনি লেখেন, বিবাহ এবং বিচ্ছেদ দুইটাই খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। এগুলো জীবনের অংশ। সব দোষ যে মেয়েদেরই, এমনটাও ভাবার কিছুই নাই। স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই কারণে বিচ্ছেদ হয়। একজনের দোষ খোঁজে লাভ কী? যাইহোক জীবন এমনই।

সানাই মডেলিংয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করে পরবর্তীতে মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেন। এরপর ‘ময়নার ইতিকথা’ ও ‘শালবনের মহুয়া’ নামের দুটি সিনেমায় অভিনয় করেন। যদিও সিনেমা দুটি পরবর্তীতে মুক্তির মুখ দেখেনি।

প্রসঙ্গত, ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও প্রকাশের মাধ্যমে আলোচনায় আসা এ মডেল ২০১৮ সালে ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টের মাধ্যমে ব্রেস্টের আকৃতি বড় করে বেশি আলোচিত হন। এ কারণে সোশ্যালে অনেক নেতিবাচক মন্তব্যের মুখেও পড়েন তিনি।

এছাড়া সানাই ২০১৯ সালে এক মন্ত্রীকে বিয়ের ঘোষণা দিয়ে ফের আলোচনায় আসেন। যদিও শেষ পর্যন্ত ২০২২ সালে একজন ব্যাংক কর্মকর্তাকে বিয়ে করে সংসার শুরু করেন আলোচিত এ মডেল।

বিজনেস আওয়ার/২৩ মে, ২০২৩/এএইচএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান:
ট্যাগ :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার মেইলে তথ্য জমা করুন

সানাই মাহবুবের দাম্পত্যজীবনে বিচ্ছেদের সুর

পোস্ট হয়েছে : ১১:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩

বিনোদন ডেস্ক: আলোচিত-সমালোচিত মডেল ও অভিনেত্রী সানাই মাহবুবের দাম্পত্যজীবন ভালো যাচ্ছে না। এ কারণে বিচ্ছেদের পথে হাঁটছেন। আর এ বিচ্ছেদের জন্য স্বামী ও শাশুড়িকে অভিযুক্ত করলেন এ অভিনেত্রী।

সাম্প্রতিক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দাম্পত্য সমস্যা ও বিচ্ছেদের ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন সানাই। এবার সরাসরি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বললেন তিনি।

রোববার (২১ মে) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দেওয়ার পর থেকেই সেই গুঞ্জন আরও পোক্ত হয়। সেখানে স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন সানাই। শাশুড়ির জন্য আমাদের সংসার এখন ভাঙনের পথে। এ নিয়ে স্বামীকে কিছু বললেও চুপ থাকে সে।

আগামী ৭ জুন কোর্টের মাধ্যমে স্বামী আবু সালেহ মুসার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হবে বলেও জানিয়েছেন আলোচিত এ মডেল। তিনি বলেন, আমাদের আর একসঙ্গে থাকা হচ্ছে না। একটি সংসার টিকিয়ে রাখার জন্য দুজনের চেষ্টা প্রয়োজন। কিন্তু ওর মাঝে আমি সেটা দেখি না।

এছাড়া একই দিন ফেসবুকে এক পোস্টে তিনি লেখেন, যে স্বামী বোঝেনি তার স্ত্রী তার কাছে কতো টুকু দামি। ছেড়ে দেওয়াই উত্তম সেই পুরুষের হাত যে বোঝেনি নারীর কদর।

এই পোস্ট দেওয়ার কয়েক দিন আগেই অন্য এক পোস্টে তিনি লেখেন, বিবাহ এবং বিচ্ছেদ দুইটাই খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। এগুলো জীবনের অংশ। সব দোষ যে মেয়েদেরই, এমনটাও ভাবার কিছুই নাই। স্বামী-স্ত্রী উভয়েরই কারণে বিচ্ছেদ হয়। একজনের দোষ খোঁজে লাভ কী? যাইহোক জীবন এমনই।

সানাই মডেলিংয়ের মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করে পরবর্তীতে মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেন। এরপর ‘ময়নার ইতিকথা’ ও ‘শালবনের মহুয়া’ নামের দুটি সিনেমায় অভিনয় করেন। যদিও সিনেমা দুটি পরবর্তীতে মুক্তির মুখ দেখেনি।

প্রসঙ্গত, ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও প্রকাশের মাধ্যমে আলোচনায় আসা এ মডেল ২০১৮ সালে ব্রেস্ট ইমপ্ল্যান্টের মাধ্যমে ব্রেস্টের আকৃতি বড় করে বেশি আলোচিত হন। এ কারণে সোশ্যালে অনেক নেতিবাচক মন্তব্যের মুখেও পড়েন তিনি।

এছাড়া সানাই ২০১৯ সালে এক মন্ত্রীকে বিয়ের ঘোষণা দিয়ে ফের আলোচনায় আসেন। যদিও শেষ পর্যন্ত ২০২২ সালে একজন ব্যাংক কর্মকর্তাকে বিয়ে করে সংসার শুরু করেন আলোচিত এ মডেল।

বিজনেস আওয়ার/২৩ মে, ২০২৩/এএইচএ

ফেসবুকের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান: